ন্যাভিগেশন মেনু

‘ভারত অনেক উন্নত, দুর্নীতিতেই ডুবেছে পাকিস্তান’ করুণ স্বীকারোক্তি ইমরান খানের

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন, ভারত একটু একটু করে উন্নয়নের পথে হাঁটলেও সে ক্ষেত্রে ক্রমশই পিছিয়ে পড়েছে পাকিস্তান।

আগামীকাল শনিবার  (০৬ মার্চ) পাক সংসদের নিম্নকক্ষে আস্থা ভোটের মাধ্যমে নিজের শক্তিপরীক্ষা হবে তার। তার আগেই বিস্ফোরক পাক প্রধানমন্ত্রী।

পাকিস্তানের থেকে অনেক বেশি উন্নত দেশ ভারত। দুর্নীতিতে ডুবেই শেষ হয়ে গিয়েছে ইসলামাবাদের উন্নয়নের আশা। কোনও পাক বিরোধী ব্যক্তিত্ব নয়, এমন দাবি স্বয়ং পাক প্রধানমন্ত্রীর। 

বৃহস্পতিবার রাত আটটায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় খোলাখুলি এমনই বিস্ফোরক কথা বলতে শোনা যায় ইমরানকে। এদিন তিনি কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন, স্বাধীনতার পর থেকে ভারত যখন একটু একটু করে উন্নয়নের পথে হেঁটেছে পাকিস্তান তখন ক্রমশই পিছিয়ে পড়েছে।

শনিবার পাক সংসদের নিম্নকক্ষে আস্থা ভোটের মাধ্যমে নিজের শক্তিপরীক্ষা হবে ইমরানের। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভিডিও বার্তায় সেই নিয়ে বক্তব্য রাখেন ইমরান। জানিয়ে দেন, হেরে গেলে গদি ছাড়তেও আপত্তি নেই তার। 

এরই পাশাপাশি দেশের পরিস্থিতি নিয়েও মুখ খোলেন তিনি। রীতিমতো ভারত বন্দনা করতেও দেখা যায় তাকে। ঠিক কী বলেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী? 

তার কথায়, ”আজ থেকে ৫০-৫৫ বছর আগে সারা বিশ্বে উন্নয়নের প্রতীক হিসেবে পাকিস্তানকে ধরা হতো। আমাদের দেশের এমনই একটা ভাবমূর্তি ছিল বিশ্বের কাছে। আমেরিকায় গেলে পাক প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে হাজির থাকতেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।” 

কিন্তু পরবর্তী সময়ে ক্রমেই নিচের দিকে নামতে থাকে পাকিস্তান। এমন দাবি করে ইমরান বলেন, ”এর সূচনা হয়ে গিয়েছিল ১৯৫০ সালের পর থেকেই। দুর্নীতি আকাশ ছুঁয়ে ফেলতে শুরু করেছিল। দলীয় প্রতীক ছাড়া নির্বাচন শুরু হয় দেশে। 

সেই সময় থেকেই পাকিস্তানের ভাগ্য বদলে যেতে থাকে।” এরই পাশাপাশি তার কথায় উঠে আসে ভারতের প্রশস্তি। তিনি বলেন, ”ক্রিকেট খেলতে যখন ভারতে যেতাম, তখন মনে হতো কোনও গরিব দেশ থেকে এক সম্পদশালী উন্নত দেশে খেলতে এসেছি।”

প্রসঙ্গত, বছর তিনেক আগে মসনদে বসা ইমরান ক্রমেই কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন। বিশেষত, গত বছরের মাঝামাঝি সময় থেকে এগারোটা দলের বিরোধী জোটের প্রতিবাদে ক্রমেই দেওয়ালে ঠেকে গিয়েছে তার পিঠ। 

অন্যদিকে অস্বস্তি আরও বেড়েছে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স-এর (FATF) ধূসর তালিকা থেকে পাকিস্তান রেহাই না পাওয়ায়। এবার গদি হারানোর মুখে ইমরানের মুখে শোনা গেল উলট পুরাণ।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন, কলকাতা

এস এস