ন্যাভিগেশন মেনু

‘ফ্লোরাকে চুমু খাওয়াটাই আমার জীবনের বড় অ্যাডভেঞ্চার’


সীমা ভাবি ওরফে অন্বেষী জৈন। টানা তিন বছর ধরে গুগল ইঞ্জিনে সবচেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে তার নাম। তার মোহময়ী রূপ এবং লাস্যময়ী অন্দাজের দুর্দান্ত কম্বিনেশন আজও ভোলেননি দর্শকরা। ২০১৯ সালে মোস্ট গুগলড স্টারের তকমা পেয়েছিলেন। আজও সেই স্থান ধরে রেখেছেন এই অভিনেত্রী।

নায়িকা বলেন, ‘আমি কেট হওয়ার স্বপ্ন দেখতাম। সেই কারণেই কম বয়সে মুম্বাইতে পালিয়ে আসি। স্ট্রাগল শুরু হয়। ক্যারিয়ারের শুরুটা মোটেই সহজ ছিলো না।’

তবে একতা কাপুরের ‘গান্দি বাত ২’ সিরিজের মাধ্যমে ভাগ্যের চাকা ঘুরে যায় অন্বেষীর। যদিও সমকামীর ভূমিকায় তাকে অভিনয় করতে দেখে ভীষণ রেগে গিয়েছিলেন অন্বেষীর বাবা।

এক সাক্ষাৎকারে অন্বেষী বলেন, ‘ফ্লোরাকে চুমু খাওয়াটাই আমার জীবনের সব থেকে বড় অ্যাডভেঞ্চার। যখন বাবার ফোন এসেছিল, তখন আমি জিমে ছিলাম। তার তিরস্কার শুনে আমার চোখে পানি চলে এসেছিল। কাঁদতে কাঁদতে মুম্বাইয়ের রাস্তা ধরে ছুটছিলাম। বাবা আমাকে বুঝলেন না, এটা ভেবেই দুঃখ হয়েছিল। আমি পরে ফোন করব বলে লাইন কেটে দিয়েছিলাম। এরপরে অবশ্য একপাতার চিঠি লিখেছিলাম। উত্তর আসেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যেটুকু করেছি নিজের প্রতিভার জোরে। বাড়ি, গাড়ি, লাইফস্টাইল সব নিজে করেছি। ওই সিরিজে অভিনয় না করলে এতটা পারতাম না। তাই কোনও আফসোস নেই।’ সূত্র: এইসময়

ওআ/