ন্যাভিগেশন মেনু

‘প্রধানমন্ত্রীর মুক্তির মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র তার যাত্রাকে অব্যহত রাখতে সক্ষম হয়েছিল’


কারাবন্দী শেখ হাসিনা এবং অন্যান্য রাজনৈতিক নেতার মুক্তির মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র আবার তার যাত্রাকে অব্যহত রাখতে সক্ষম হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুরে পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

এসময় প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুজ্জীবিত করার জন্য ২০০৮ সালের ১১ জুন শেখ হাসিনার মুক্তি অপরিহার্য ছিল। তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে যে সকল মিথ্যা মামলা দায়ের করেছিল তার একটিও প্রমান করতে পারেনি।‘

প্রধানমন্ত্রীর কারামুক্তি দিবসের কথা স্মরণ করে এ দিনটি বাঙালীর জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, ‘তৎকালীন তত্ত্ববধায়ক সরকারের সময়ে ক্ষমতার স্বপ্নে দেশের কিছু ব্যক্তি ও দুই দলের অনেক নেতারা বিভোর ছিলেন। তবে তাদের সে দিবাস্বপ্ন পূরণ হয়নি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করতে না পারলে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ব্যাহত হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশকে রক্ষা করতে না পারলে হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টানের সৌন্দর্য এবং বাঙালির জাতিসত্তা নষ্ট হয়ে যাবে।’

তিনি বলেন, আজ অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা ও শিক্ষায় ডিজিটাল বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। দেশকে অধঃপতিত অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটানোর বিস্ময়কর সাফল্য একজন রাষ্ট্রনায়ক দেখাতে পেরেছেন। তিনি আর কেউ নন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বশির আহমেদ এর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান এবং জেলা মৎস কর্মকর্তা মো. আব্দুল বারী।

এমআইআর/ওআ