ন্যাভিগেশন মেনু

শীতলক্ষ্যায় লঞ্চডুবি, কার্গো জাহাজসহ আটক ১৪

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবিতে ৩৬ যাত্রী নিহত হওয়ার ঘটনায় ধাক্কা দেওয়া জাহাজসহ ১৪ নাবিককে আটক করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দুপুর-২টার দিকে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া নয়ানগর সংলগ্ন মেঘনা নদীতে জাহাজটি আটক করে কোস্টগার্ড। 

এ সময় আটক করা হয় জাহাজের ১৪ কর্মচারীকেও। 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোস্টগার্ড পাগলা স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আশমাদুল ইসলাম বলেন, ‘যাত্রীবাহী লঞ্চটিকে ধাক্কা দেওয়ার পর দ্রুত কার্গো জাহাজটি মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় চলে যায়। সেখানে জাহাজটি রং বদলে ফেলা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘কার্গোটি গজারিয়ার কোস্টগার্ড স্টেশনের কাছাকাছি নোঙর করা ছিল। সেখানে অভিযান চালিয়ে কার্গো জাহাজ এসকেএল-৩ সহ আটক করা হয়েছে কার্গোটির ১৪ নাবিককে।’

গত রবিবার সন্ধ্যার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের বিআইডব্লিউটিএ টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী লঞ্চ এমএল সাবিত আল হাসানকে শহরের কয়লাঘাট এলাকায় কার্গো জাহাজ এসকেএল-৩ পেছন থেকে ধাক্কা দিলে ডুবে যায়। লঞ্চের অনেকে সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও নিখোঁজ থাকেন অনেকে। পরে ৩৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় বেপরোয়া গতিতে জাহাজ চালিয়ে লঞ্চ ডুবিয়ে ৩৬  যাত্রীকে হত্যার অভিযোগে মামলা করেছে বিআইডব্লিউটিএ।

ওআ/