ন্যাভিগেশন মেনু

রাজধানীতে পুলিশের ওপর ছাত্রদলের হামলা, সাংবাদিকসহ আহত ৩৫


রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ছাত্রদলের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে ছাত্রদল ও বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়লে পুলিশের ফাঁকা গুলি ও কাঁদানে গ্যাস শেল নিক্ষেপ করে। এ সময় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় পুলিশ-সাংবাদিকসহ অন্তত ৩৫ জন আহত হয়েছেন।

রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় গাড়ি ও আশপাশের ভবন ভাঙচুর চালায় ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা জোনের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান সাংবাদিকদের এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অনুমতি ছাড়াই প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শুরু করে ছাত্রদল। সকাল ১০টার দিক থেকে ছাত্রদল ও বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাব এলাকায় জড়ো হতে থাকেন। বেলা সোয়া ১১টার দিকে তারা রাস্তায় নামলে বাধা দেয় পুলিশ। একপর্যায়ে ছাত্রদল ও বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন। গাড়ি ও আশপাশের ভবন ভাঙচুর করেন। পুলিশ ফাঁকা গুলি ও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণে আনে।

রমনা জোনের ডেপুটি কমিশনার সাজ্জাদুর রহমান জানান, প্রেসক্লাবের সামনে পূর্বপরিকল্পিতভাবে পুলিশের ওপর ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘মেট্রোপলিটন এলাকায় কর্মসূচি পালন করতে হলে পুলিশ কমিশনারের অনুমতি লাগে। তারা অনুমতি ছাড়া এখানে এসেছিল। তারা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছোড়েন, যেটা পূর্বপরিকল্পিত মনে হয়েছে। পুলিশের পাঁচ-সাতজন আহত হয়েছেন। তাদের বিভিন্ন মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মী পুলিশ হেফাজতে আছেন। তাদের বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।’

ওয়াই এ/এডিবি