ন্যাভিগেশন মেনু

রমজানে ২৫ হাজার মেট্রিকটন তেল আমদানি করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

রমজানের সময় আমাদের বাজারে যাতে সমস্যায় পড়তে না হয়, সেজন্য টিসিবির মাধ্যমে ২৫ হাজার মেট্রিকটন ভোজ্য তেল আমদানি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

রবিবার (৭ মার্চ) দুপুরে সচিবালয়ে অফিস কক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সফররত ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সচিব অনুপ ধাওয়ানের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘রমজানের জন্য আমাদের যথেষ্ঠ প্রস্তুতি রয়েছে। ২৫ হাজার মেট্রিকটন ভোজ্য তেল আমদানি করা হবে। যাতে করে নিম্নআয়ের মানুষের কাছে সহজে পৌঁছানো যেতে পারে। এরজন্য সব রকম ব্যবস্থাই আমরা নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ’নিজেদের স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়াটাই জরুরি অনেকখানি। তবে কিছু পণ্যের দাম নির্ধারণ করা যায় না। যেমন ভোজ্যতেলের দাম আন্তর্জাতিক বাজারে হঠাৎ করে বেড়ে গেছে। আমাদের প্রায় ৯০ শতাংশ তেল আমদানি করতে হয়। এই বাজারটা আমাদের ওপর না। আন্তর্জাতিক বাজার নিয়ন্ত্রণ করে। আমরা আমদানির দামে ওপর একটা সার্বজনীন যে দামটা মানবে সে রকম একটা দাম নির্ধারণ করে দেই, সেটা হলো তেলে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যেসব জিনিস আমাদের আমদানি করতে হবে সেটা আমাদের চেষ্টা করতে হবে। টিসিবি তো সারাদেশের সব জায়গায় রাখতে পারবে না। টিসিবি সাহায্য করবে নিম্নআয়ের মানুষকে। সে জন্য আমাদের সবকিছু রয়েছে। কয়েকটা আইটেম নিয়ে আমাদের সমস্যা। যেমন - তেল, পেঁয়াজ। পেঁয়াজ আমাদের দেশে ৭৫ শতাংশ উৎপাদন হয়। বাকি ২৫ শতাংশ আমদানি করতে হয়। এটা যদি কোনো রকমে ৯০ শতাংশে যেতে পারতাম তাহলে কমে যেতো। তবে আমাদের পেঁয়াজের জন্য ভারতের ওপর পুরোপুরি নির্ভর করাটা ঠিক হবে না। কারণ ওদের দেশেও পেঁয়াজ নিয়ে মাঝে মাঝে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। যার জন্য আমাদের বিকল্প বাজার থেকে ব্যবস্থা করতে হবে।’

সিবি/এডিবি