ন্যাভিগেশন মেনু

মায়ানমারে বিক্ষোভে আবারও গুলি, একদিনে নিহত ৩৮


মায়ানমারে সামরিক জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে ফের পুলিশের ছোড়া গুলিতে একদিনে অন্তত ৩৮ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০ জন।

স্থানীয় বুধবার (৩ মার্চ) কয়েকটি শহরে এ প্রাণহানীর ঘটনা ঘটে। এ অবস্থায় মায়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে এদিনও অব্যাহত আন্দোলনের অংশ হিসেবে ইয়াঙ্গুন, ম্যান্দালেসহ দেশজুড়ে বিক্ষোভ করেন সাধারণ মানুষ। তাদের দমাতে চড়াও হয় মায়ানমার সেনাদের মদদপুষ্ট পুলিশ। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় ইয়াংগুন।

মায়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শ্রেনার বার্গনার বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) জানান, জাতিসংঘ দিনটিকে সবচেয়ে ভয়াবহ ও রক্তক্ষয়ী দিন হিসেবে আখ্যা দিয়েছে। একই সঙ্গে নিরীহ আন্দোলনকারীদের ওপর জান্তা সরকারের বর্বরোচিত হামলায় ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

ভয়াবহ দিনে সর্বোচ্চসংখ্যক আন্দোলনকারীর মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে মায়ানমারবাসী। বিকেলেই দাউয়েই শহরে মরদেহ নিয়ে দীর্ঘ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেন আন্দোলনকারীরা।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক বাহিনী অভ্যুত্থানের মাধ্যমে অং সান সু চিসহ মায়ানমারের নির্বাচিত সরকারের প্রেসিডেন্ট ও অধিকাংশ মন্ত্রীকে আটক করে। এর কয়েক দিন পর থেকেই দেশটির সর্বস্তরের জনতা রাস্তায় বিক্ষোভ শুরু করে।

অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ এসব বিক্ষোভ সহিংসভাবে দমন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জান্তা সরকার। এ পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ৫০ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অনেকে। সেই সঙ্গে প্রতিদিন চলছে ব্যাপক ধরপাকড়।

ওয়াই এ/ওআ