ন্যাভিগেশন মেনু

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ ৫ মে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে টানা তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আগামী ৫ মে শপথ নেবেন মমতা বন্দ্যেপাধ্যায়। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হবে রাজভবনে।

সোমবার (৩ মে) সন্ধ্যায় ৭টায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে দেখা করে তৃতীয়বারের জন্য সরকার গড়ার দাবি জানাবেন তিনি। 

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম জানায়, সম্ভবত আগামী ৫ মে রাজভবনে শপথ নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভা। এই বিপুল জয়ের পরেও নিজের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানকে কাটছাঁট করছেন তৃণমূলনেত্রী। এবারের মন্ত্রিসভায় থাকছে চমক। কারা কারা মন্ত্রী হবেন তা ঠিক হয়ে গেছে। শুধু ঘোষণা বাকি।

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, বুধবার মুখ্যমন্ত্রী শপথ নেওয়ার পর বৃহস্পতিবার (৬ মে) বাকি জয়ী প্রার্থীরা শপথ নেবেন।

কঠিন লড়াই করে জিতেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু জেতাই নয়, দলকে টেনে নিয়ে গেলেন ২১৩ আসন ছাড়িয়ে। প্রমাণ করলেন বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়। যিনি নির্বাচনী প্রচারে বলেছেন, ‘বাংলার লড়াইয়ে জিতেই নজর দেব দিল্লির দিকে।’

নিজে নন্দীগ্রামে হেরেছেন। তবে তিনি ভোট কারচুপির কথা জানিয়ে বলেন, ‘ওখানে ভোট লুট হয়েছে। নির্বাচন কমিশন বিজেপির মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছে। তিন ঘণ্টা কারসাজি হয়েছে। নন্দীগ্রামের আন্দোলনে ছিলাম, মানুষের পাশে থাকতে চেয়েছিলাম, মানুষের রায়কে মাথা পেতে নিলাম। এবারের নির্বাচনে যেরকম স্বেচ্ছাচারিতা দেখলাম, তার একটা বিহিত হওয়ার দরকার। তাই সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চে যাচ্ছি।’

নন্দীগ্রাম নিয়ে যদি সুপ্রিম কোর্ট পুনর্গণনার রায় না দেয়, তাহলে অন্য কেন্দ্র থেকে জিতে আসবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূল প্রধান জানায়, করোনা আবহে কোনও বিজয় মিছিল, কোনও বিজয় উৎসব হবে না। 

এডিবি/