NAVIGATION MENU

বিপিএল আসরে বাড়তি আকর্ষণ সালমান ও ক্যাটারিনা


বিপিএলের তৃতীয় আসরে এবার থাকছে বাড়তি আকর্ষণ। এরআগে  আয়োজন করা হয়েছে দুটি আসর। বিপিএলের গত দুই আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছিল একেবারেই সাদামাটা। এবার তার ব্যতিক্রম। বিসিবির তত্ত্বাবধানে আয়োজিত বিশেষ বঙ্গবন্ধু বিপিএলে শুরুতেই থাকছে জমকালো অনুষ্ঠান।

আগামী ৮ ডিসেম্বর শুরু হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষের কাউন্টডাউন। ওই দিন সন্ধ্যায় মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে পর্দা উঠবে বিপিএলেরও। উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তবে বিশেষ আয়োজন হিসেবে এবার থাকছে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। বলিউডের তারকাদের সঙ্গে দেশি তারকারাও থাকবেন।  এ আয়োজনে থাকবেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান খান ও অভিনেত্রী ক্যাটারিনা কাইফ। আর দেশীয় শিল্পীদের মধ্যে মমতাজসহ বেশ কয়েকজন তারকা থাকবেন এই অনুষ্ঠানে। এ উপলক্ষ করেই বাংলাদেশে আসছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান ও অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ।

আগামী ১১ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এবং সিলেট থান্ডারের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে মাঠে গড়াবে বঙ্গবন্ধু বিপিএল। তার আগে ৮ ডিসেম্বর মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

সেই অনুষ্ঠান রাঙাতেই ঢাকায় আসছেন এই দুই বলিউড তারকা। রবিবার মিরপুরে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আমরা দুই বলিউড সুপারস্টার সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য নিশ্চিত করেছি। তারা স্টেজ পারফর্ম করবেন। বাংলাদেশ থেকে শিল্পী মমতাজ থাকছেন জানিয়ে তিনি আরও বলেন, গানের জন্য এই মুহূর্তে বিশ্ব সঙ্গীতের দুই সাড়া জাগানো শিল্পীর অনুষ্ঠানে পারফর্ম করতে পারেন। তবে এখনও তারা নিশ্চিত নয় বলে নাম বলবো না।

আশা করছি, আজকালের মধ্যেই তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে পারবো । সাত দলের বিপিএলের ফাইনাল ১৭ জানুয়ারি। তবে আসর শুরুর আগে ম্যাচের সময়ের পরিবর্তন আনা হয়েছে। পেছানো হয়েছে শুক্রবার ছাড়া অন্যান্য ম্যাচগুলোর সময়সীমা।

আগের সূচিতে ম্যাচ শুরুর সময় ছিল দুপুর সাড়ে ১২টা এবং সন্ধ্যা ৫টা ২০ মিনিটে। এখন সেটা বদলে দিনের প্রথম ম্যাচ শুরু হবে দুপুর ২টায় এবং সন্ধ্যার ম্যাচ সন্ধ্যা ৭টায়। সাত দলের টুর্নামেন্টের ম্যাচ ৪৬টি। চার ধাপে খেলা হবে আসরের।

১১-১৪ ডিসেম্বর মিরপুর শেরে- ই- বাংলা স্টেডিয়ামে। ১৭-২৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে, ২-৭ জানুয়ারি সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়াম এবং ১০-১৭ জানুয়ারি মিরপুরে খেলা। উদ্বোধনী ম্যাচে মিরপুরে মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডার এবং কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ও রংপুর রেঞ্জার্স।

১১ জানুয়ারি পর্যন্ত লিগ পর্বের ম্যাচ। ১৩ জানুয়ারি এলিমিনেটর ম্যাচ, ১৩ জানুয়ারি প্রথম কোয়ালিফাইয়ার্স ম্যাচ এবং ১৫ জানুয়ারি দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ার্স ম্যাচ। ১৭ জানুয়ারি ফাইনাল মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায়।

আর এই গালা অনুষ্ঠান উপভোগ করতে টিকিটের মূল্য সাধারণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যেই রাখতে চায় বিসিবি। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল জানান, গ্যালারির টিকিটের দাম ৩০০ থেকে ১,০০০ (এক হাজার) টাকার মধ্যে রাখা হবে।

বিকাল ৪টা থেকে শুরু হয়ে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে অনুষ্ঠান। দেশের শিল্পীদের দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হবে। রাতে পারফর্ম করবেন ভারতীয় শিল্পীরা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের টিকিট বিক্রি করা হবে ৫, ৬ ও ৭ ডিসেম্বর। অনলাইন ছাড়াও মিরপুর বুথে টিকিট পাওয়া যাবে বলে জানান শেখ সোহেল।

৮ ডিসেম্বর উদ্বোধনের পর মাঠের খেলা গড়াবে ১১ ডিসেম্বর। গতবারের মতো এবারও ঢাকার বাইরে খেলা হবে চট্টগ্রাম ও সিলেটে। তবে প্রথম ও শেষ পর্বসহ মাঝের কিছু ম্যাচ মিলিয়ে আয়োজনের সিংহভাগটাই হবে ঢাকাতে।

এ বছর বিপিএলে অংশ নেবে নতুন সাত নতুন দল-ঢাকা প্লাটুন, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, রাজশাহী রয়্যালস, সিলেট থান্ডার, কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স, রংপুর রেঞ্জার্স ও খুলনা টাইগার্স।

এস এস