ন্যাভিগেশন মেনু

বিজয়ী ঘোষণার পরেও মুকুট নিয়ে টনাটানি, আঘাত পেয়ে হাসপাতালে মিসেস শ্রীলঙ্কা

সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিবাহিত নারীদের নিয়ে সুন্দরী প্রতিযোগিতা।  রবিবার (৪ এপ্রিল ) কলম্বো প্রেক্ষাগৃহে বসেছিল এই আয়োজন। সেখানে পুষ্পিকা দে সিলভাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

কিন্তু দেশসেরা সুন্দরীর মুকুট অর্জনের আনন্দঘন মুহূর্তে ঘটে গেছে এক দুর্ঘটনা। পরিস্থিতি এমন বাড়াবাড়ি পর্যায়ে চলে গেল যে, মাথায় আঘাত নিয়ে মঞ্চ ছাড়তে হয় শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে বড় সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিজয়ীকে। ওই মুকুটের আঘাতেই মাথায় চোট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাকে। তার মাথা থেকে মুকুটটি ছিনিয়ে প্রতিযোগিতার রানার-আপের মাথায় পরিয়ে দেন বর্তমান ‘মিসেস ওয়ার্ল্ড’ ক্যারোলিন জুরি। তখনই ঘটে দুর্ঘটনা।

পুষ্পিকাকে বিজয়ী ঘোষণার কয়েক মুহূর্ত পর একই মঞ্চে উপস্থিত ওই প্রতিযোগিতার ২০১৯ আসরের বিজয়ী দাবি করেন, পুষ্পিকা পুরস্কার পাওয়ার অযোগ্য, কারণ তাঁর বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। শুধু বলাই নয়, পুষ্পিকার মাথার মুকুট নিয়ে নেন ওই সাবেক ‘মিসেস শ্রীলঙ্কা’।

কিন্তু, প্রতিযোগিতার ২০১৯ সালের বিজয়ী ক্যারোলিন জুরি অভিযোগ করেন, পুষ্পিকা প্রতিযোগিতার শর্ত ভঙ্গ করেছেন। কারণ, নিয়ম অনুযায়ী প্রতিযোগীকে বিবাহিত হতে হবে এবং বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়া কেউ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন না। এরপর পুষ্পিকার মাথায় পরানো মুকুট নিয়ে নেন ক্যারোলিন জুরি।

উপস্থিত দর্শদের উদ্দেশে ক্যারোলিন জুরি বলেন, ‘বিধি অনুযায়ী, বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে এমন কেউ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার অযোগ্য। তাই, এই মুকুট দ্বিতীয় স্থান অধিকার করা প্রতিযোগীর প্রাপ্য।’

ওই সময়ের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, পুষ্পিকার মাথা থেকে মুকুট খুলে ক্যারোলিন জুরি রানার-আপ প্রতিযোগীকে বিজয়ীর মুকুট পরিয়ে দিচ্ছেন। আর অশ্রুসজল চোখে মঞ্চ থেকে নেমে যাচ্ছেন পুষ্পিকা ডি সিলভা।

পুষ্পিকা জানান, তিনি তাঁর স্বামীর সঙ্গে থাকছেন না, তবে তাঁদের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়নি।

এক ফেসবুক পোস্টে পুষ্পিকা ডি সিলভা জানান, মাথায় আঘাত পাওয়ার কারণে তাঁকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যেতে হয়েছে।

পুষ্পিকা আরও জানিয়েছেন, ‘বিনা কারণে এভাবে অপমানিত’ হওয়ায় তিনি আইনি ব্যবস্থা নেবেন।

ওআ/