ন্যাভিগেশন মেনু

বরিশালে ইলিশ ধরার অপরাধে গ্রেপ্তার ৭

সারাদেশে দুই মাস (মার্চ ও এপ্রিল) ইলিশ মাছ ধরা বন্ধ থাকবে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বরিশালে ইলিশের অভয়াশ্রমগুলোতে মৎস্য অধিদপ্তর ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে ইলিশ ধরার অপরাধে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

সোমবার (১ মার্চ) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার বাগরজা নদী থেকে অভয়াশ্রমে মাছ ধরার অপরাধে চারজনকে ও বরিশাল নগরীর রুপাতলী দপদপিয়া এলাকা থেকে জাটকা পরিবহন করার অপরাধে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নৌপুলিশ সূত্রে জানা যায়, বরিশাল নগরীর রুপাতলী দপদপিয়া এলাকা থেকে জাটকা পরিবহন করার অপরাধে তিনজনের মধ্যে দুজনকে ২০ দিনের জেল ও একজনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এ প্রসঙ্গে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুসারে দেশের ছয়টি অভয়াশ্রমের পাঁচটিতে মৎস্যসম্পদ রক্ষায় আগামী দুই মাস এ অভিযান চলবে। বরিশালের মেঘনা, কালাবদর ও গজারিয়া নদীর ৮২ কিলোমিটার এলাকায় অভয়াশ্রম রয়েছে ইলিশের। আর ছয় জেলা ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, চাদপুর, লক্ষ্মীপুর, শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন নদীর ৪৩২ কিলোমিটার এলাকায় মোট ছয়টি অভয়াশ্রমের মধ্যে পাঁচটিতে এ অভিযান চলছে।

এই আইন অমান্য করলে নৌপুলিশ, জেলা পুলিশ, কোস্ট গার্ড ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।

মৎস্যজীবীদের কথা বিবেচনা করে অভয়াশ্রম ও জাটকা রক্ষা কার্যক্রম উপলক্ষে তাদের জন্য ওই দুই মাস ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেওয়া হবে।

ওয়াই এ/এডিবি