ন্যাভিগেশন মেনু

নুসরাতকে নিখিলের তালাক নোটিশ


ওপার বাংলার জনপ্রিয় সাংসদ-অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের সঙ্গে তার ব্যবসায়ী স্বামী নিখিল জৈনের সম্পর্ক একেবারেই ভালো যাচ্ছিল না। অনেক দিন ধরে দাম্পত্য জটিলতার মধ্যে আছেন তারা।

অবশেষে স্ত্রী নুসরাত জাহানের কাছে বিবাহবিচ্ছেদের দাবি জানালেন নিখিল জৈন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, নুসরাতকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন তার স্বামী নিখিল জৈন। সোমবার আইনজীবীর মাধ্যমে ওই নোটিশ পাঠান তিনি।

নিখিল জানান, এই বিষয়ে তিনি এখনই কিছু বলতে চান না। যা বলার পরে বলবেন। এদিকে, নিখিলের ক্রেডিট কার্ড এখনও ব্যবহার করেন নুসরাত। তাতে কখনও বাধা দেননি নিখিল। যশের সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জন বা একসঙ্গে রাজস্থানে ছুটি কাটাতে যাওয়া কোনো কিছু নিয়েই মুখ খোলেননি।

অন্যদিকে কোনো নোটিশ পাননি বলে দাবি করেছেন নুসরাত জাহান। অভিনেত্রী বলেন, ‘এমন কোনো নোটিশ আমি পাইনি।‘ ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের যে তথ্য প্রকাশ হয়েছে সেটিও ভুয়া বলে দাবি করা হয়েছে নুসরাতের পক্ষ থেকে।

নিখিলের সোশ্যাল মিডিয়াতেও নুসরাত-বিরোধী কোন পোস্ট দেখা যায়নি। বরং ভালোবাসা দিবসে আকারে ইঙ্গিতে বলেছিলেন, নুসরাত বদলে গেলেও তিনি একই রকম আছেন। কিন্তু অবশেষে বাধ্য হয়ে তিনি এই পদক্ষেপ নিলেন। 

এ দিকে ইনস্টাগ্রাম বলছে, নুসরাতের সঙ্গে সম্পর্কের তিক্ততা থাকলেও তার বোন নুজহাত জাহানের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেছেন নিখিল।

২০১৯ সালের শুরু দিকে বেশ আলোচনায় ছিলেন নুসরাত-নিখিল। তুরস্কের বোদরুমে রূপকথার বিয়ে সেরেছিলেন তারা। কিন্তু সেই স্বপ্নের রেশ খুব শিগগিরই কেটে যায়। শোনা যায়, বছর দেড়েক আগে নিখিলের সঙ্গে বিবাদের কারণে মাত্রাতিরিক্ত ওষুধ খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন নুসরাত। 

ওআ/