ন্যাভিগেশন মেনু

নিজেই নিজেকে বিয়ে করলেন এক মহিলা

যে কোনও বিয়ের অনুষ্ঠানে একজন বর, কনে থাকে। আধুনিক যুগে অনেকে আবার সমলিঙ্গেও বিয়ে সারেন। কারণ বিশ্বের বহু দেশে তা আইনসিদ্ধ। 

কিন্তু এবার সামনে এল আজব এক ঘটনা, যেখানে এক মহিলা নিজেই নিজেকে বিয়ে করলেন। তাও আবার যেনতেন প্রকারে নয়, একেবারে অনুষ্ঠান করেই। খরচ করলেন ভারতীয় মুদ্রায় এক লক্ষ টাকা। এমনকী বিয়ের পর প্রথা মেনে আয়নাতেই নিজেকে চুমুও খান। অবাক করা এই ঘটনাটি ঘটেছে কলোরাডোতে। 

জানা গিয়েছে, মেগ টেলর মরিসন নামে ওই যুবতী আসলে হ্যালোইনের দিনই নিজের বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে বিয়ে করবেন বলে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু ২০২০ সালের জুন মাসে তাঁদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। 

কিন্তু বিয়ে করার পরিকল্পনা বদলাননি মেগ। আর তাই হ্যালোউইনে না হলেও দ্রুত বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এরপরই নিজের যাবতীয় বিয়ের পরিকল্পনা করতে শুরু করেন আটলান্টার এই বাসিন্দা। ঠিক করেন কোনও বর ছাড়াই বিয়ে করে ফেলবেন। 

এরপরই ৩৫ বছর বয়সি মেগ নিজের জন্য একটি কেক অর্ডার দেন। কেনেন একটি হিরের আংটিও। যদিও মেগের এই পরিকল্পনা নিয়ে তাঁর পরিবারের লোক এবং বন্ধুরা প্রথমে অনেকেই সায় দেননি। পরে যদিও তাঁরা আর আপত্তি করেননি। 

এরপরই এয়ার বিএনবিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে একেবারে কনের বেশেই হাজির হন মেগ। নিজেই নিজেকে আংটিটি পরান। এরপর নিজের লিখে আনা নোটটিও পড়েন। 

কিন্তু  প্রথা মেনে চুমুও তো খেতে হবে। সেটা কীভাবে হবে? কুছ পরোয়া নহি। আয়নায় নিজের প্রতিবিম্বে চুমু খেলেন তিনি। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে মেগের এই খবরটি। 

অনেকেই তাঁর এই পদক্ষেপের প্রশংসাও করেছেন। এই প্রসঙ্গে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানিয়েছেন, এভাবে নিজেকে বিয়ে করার বিষয়টি অনেকেই বুঝবে না। এটা আসলে নিজের ইচ্ছেকে সম্মান জানানো।

এস এস