ন্যাভিগেশন মেনু

নগ্ন ভিডিও পোস্ট, ক্ষমা চাইলেন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ মিথিলা

শৌচাগারে গোপন ক্যামেরায় এক পুরুষের নগ্ন ভিডিওচিত্র ধারণ করে ফেইসবুকে প্রকাশ করায় বিতর্কের মুখে পড়েছেন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ-২০২০ মডেল তানজিয়া জামান মিথিলা। তীব্র সমালোচনার মুখে এই নগ্ন ভিডিওর জন্য এবার ক্ষমা চাইলেন মিথিলা। প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে ক্ষমা চান তিনি। অবশ্য পরে সেই স্ট্যাটাসটি ‘হাইড’ করে ফেলেন।

তবে গতকাল মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দিবাগত রাতে মিথিলা একটি গণমাধ্যমের কাছেও নিজের ভুল সীকার করেন৷ তিনি সেখানে বলেন, ‘আমি যেটাই করেছি ভুল করেছি। আমি মাফ চাইছি। মানুষ ভুল করে এটাই স্বাভাবিক। কেউ ভুল করে যদি মাফ চায় তারপর তো আর প্যাঁচানোর কিছু নাই।’

তিনি বলেন, মানুষ ছোট থাকতে বা অনেকে না বুঝে ভুল করে ফেলে। মানুষ যদি কারও কাছে মাফ চায় সেখানে আমরা মাফ করে দিতেই পারি।’

যে পুরুষের ভিডিওচিত্র ধারণ করেছিলেন তিনি তার কাছের বন্ধু ছিলেন দাবি করে মিথিলা বলেন, ‘ও যদি বিষয়টাকে হয়রানি মনে না করে তাহলে মানুষ কেন আমাকে বিচার করবে যে, আমি হয়রানি করেছি তাকে। তারপরও আমি মাফ চেয়েছি। এখন ওরাই আমাকে হয়রানি করছে।’

গত ৩ এপ্রিল রাতে নগরীর রেডিসন ব্লু ঢাকা ওয়াটার গার্ডেনের বলরুমে ‘মিস ইউনিভার্স ২০২০’ প্রতিযোগিতার  গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়। কয়েক হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে বিজয়ের মুকুট পরেন মিথিলা।

এ প্রতিযোগিতার অডিশন পর্বে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন মিথিলা। আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী শান্তা পাল অভিযোগ করেছিলেন—‘অডিশন না দিয়েই মিস ইউনিভর্সে যুক্ত হয়েছেন মিথিলা।’ বিজয়ের মুকুট পরার পরই পুরোনো সেই বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি।

মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার আগে থেকেই শোবিজ অঙ্গনের পরিচিত মুখ মিথিলা। দেশের বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে বলিউড সিনেমায় নাম লেখান এই অভিনেত্রী।

‘রোহিঙ্গা’ নামে এ সিনেমা পরিচালনা করছেন ভারতের হায়দার খান। তিনি বলিউডের ‘দাবাং’, ‘কমান্ডো’, ‘দঙ্গল’ সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। এতে মিথিলার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ‘মিস্টার ভুটান’ স্যাঙ্গে। মজার ব্যাপার হলো—এ সিনেমার চিত্রনাট্য সাজানো হয়েছে মিথিলাকে কেন্দ্র করে। সিনেমাটি এখন মুক্তির অপেক্ষায় দিন গুনছে।

ওআ/