ন্যাভিগেশন মেনু

ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি রেলভাড়া ২২০০ টাকা

যোগাযোগের ক্ষেত্রে ভারত ও বাংলাদেশ দিন দিন ঘনিষ্ঠ হচ্ছে। প্রথমে কলকাতা-ঢাকা যাত্রীবাহী বাস, এরপর পর্যায়ক্রমে কলকাতা-ঢাকা-গুয়াহাটি বাস, কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা বাস, কলকাতা-ঢাকা, কলকাতা-খুলনা রেল চালু হয়েছে। 

এবার আগামী ২৬ মার্চ ঢাকা থেকে চিলাহাটি হলদিবাড়ি দিয়ে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত ট্রেন চালু হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন। 

তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের দিনেই দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই নতুন রুটে রেলযোগাযোগের উদ্বোধন করবেন। ঢাকা থেকে নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২২০০ টাকা। 

তার সঙ্গে যোগ হবে ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স। এ ছাড়া উত্তরাঞ্চলের মানুষেরা চিলাহাটি স্টেশন থেকেও যাতায়াত করতে পারবেন। তাদের জন্য কয়েকটি বগি নির্ধারিত থাকবে। 

যেটি কেবল নিউ জলপাইগুড়ি থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত যাতায়াত করবে। তাদের ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০০ টাকা। এর সাথে ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স যোগ হবে।

 আজ রবিবার দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে জেলা প্রশাসনের আয়োজন জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান মন্ত্রী। 

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, রেলখাত এগিয়ে নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আগামী এক বছরের মধ্যে পঞ্চগড় থেকে কক্সবাজার ও মোংলা পর্যন্ত রেল যোগাযোগ চালু হবে। আরো ৫০টি স্টেশন আধুনিকায়ন কাজ শুরু হবে। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে এবার ১০০টি রেলস্টেশনকে সজ্জিত করা হবে। 

রেলের কর্মকর্তা কর্মচারীদের অন্যের সমালোচনা করতে নিষেধ করে নিজেদের সমালোচনা করে ভালো ভালো কাজ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণেই ছিলো স্বাধীনতার ঘোষণা। কেবল ৯ মাস স্বাধীনতা সংগ্রাম হয়নি। স্বাধীনতা সংগ্রামের শুরু হয়েছে অনেক আগে থেকেই। 

৯ মাস ছিলো পাকিস্তানি হানাদার মুক্ত করার লড়াই। এখন অনেক রাজাকার মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। কেউ কেউ কমান্ডারও বনে গেছে। তারা মুক্তিযোদ্ধা সেজে দেশের ক্ষতি করছে। 

তাদের বিষয়ে সকলকে সাবধান থাকার পরামর্শ দেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী আব্দুল আলীম খান ওয়ারেশী, সিভিল সার্জন ডা. ফজলুর রহমান, পৌর মেয়র জাকিয়া খাতুন, পঞ্চগড় সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা সাইখুল ইসলামসহ সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এস এস