ন্যাভিগেশন মেনু

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীকে খুন করে স্বামীর আত্মহনন

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার পর বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সালন্দর ইউনিয়নের বরুনাগাঁও নামক এলাকার পৃথক পৃথক স্থান থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মৃত দম্পতি হলেন - সাইদুল ইসলাম (৪০) ও তার স্ত্রীর আসমা বেগম (৩০)। তাদের বাড়ি ঠাকুরগাঁও পৌর এলাকার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের আকচা কাজীপাড়া এলাকায়। সাইদুল রহমানের দুই স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাইদুলের মরদেহ টাংগন নদীর পাড়ে দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা জরুরি সেবা ৯৯৯ এর ফোন করে বিষয়টি জানালে পুলিশ মঙ্গলবার দুপুরে সাইদুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে। সাইদুলের মরদেহের এক কিলোমিটার দূরে টাংগন নদের পূর্ব পাড় থেকে স্ত্রী আসমা বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুই বউ থাকায় সংসারে প্রায় সময় ঝগড়াঝাটি লেগেই থাকতো। সাইদুল ও তার ছোট স্ত্রী আসমা দুজনই হোটেলে কাজ করতেন। ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। মরদেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও জানান, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। এ ঘটনায় রহস্য উদঘাটনে পুলিশ, পিবিআই, ক্রাইম সিনের সদস্যরা কাজ করছেন। এ ঘটনার সাথে কারা জড়িত তা তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ওয়াই এ/এডিবি