ন্যাভিগেশন মেনু

টেক্সাসে তুষারঝড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৮


যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে ভয়াবহ তুষারঝড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৮ জনে পৌঁছেছে।

এ পরিস্থিতিতে টেক্সাস, লুইজিয়ানা, মিসিসিপি, কেন্টাকিসহ বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে পানি, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, রাজ্যগুলোতে টানা ষষ্ঠদিনের মতো অন্তত ৩০ লাখ মানুষ বিদ্যুৎহীন রয়েছে। ফলে খাবার পানির মারাত্মক সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

নিউ অরলিন্স, লুইজিয়ানায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ব্যবহার করে হাসপাতালে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। বরফ গলিয়ে পাওয়া পানি টয়লেট পরিষ্কারের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। এদিকে, বরফ জমে ঘরের ভেতর থাকা পানির পাইপ বিস্ফোরণের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে।

টেক্সার টেলর কাউন্টিতে শেরিফ রিকি বিশপ বলেন, তার কর্মকর্তারা কয়েকদিন ধরে বাসিন্দাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন, খাবার ও পানি সরবরাহ করছেন এবং তারা ঠিক আছেন কি-না তা নিশ্চিত করার জন্য পরে তাদের সাথে ফলোআপ করেছেন। ইতিমধ্যে, তারা তিনজনকে মৃত অবস্থায় পেয়েছে।

টেক্সাসে হাসপাতালগুলো সচল রাখতে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে জেনারেটর, কম্বল ও খাদ্য সহায়তা পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালগুলোতে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে স্থানীয় রেস্টুরেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে ভয়াবহ এই ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় করোনা টিকা সরবরাহ এবং টিকাদান কর্মসূচি স্থগিত হয়ে গেছে। এই সপ্তাহান্তের আগে এই সেবাগুলো পুনরায় চালু করা সম্ভব হবে না।

তীব্র ঠাণ্ডায় পশ্চিম টেক্সাসে বড় বায়ুচালিত টারবাইনগুলো থেমে গেছে। এর ফলে বৃদ্ধি পাওয়া বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে পারছে না বিদ্যুৎ কোম্পানিগুলো।

এদিকে ঘরের ভেতর গ্রিল বা প্রোপেন হিটার ব্যবহার না করতে বাসিন্দাদের সতর্ক করে দিয়েছে দক্ষিণ টেক্সাসের কর্মকর্তারা। বরফে জমে থাকা ঘরবাড়িকে গরম করতে এসব সামগ্রী ব্যবহারের পর মানুষজন কার্বন মনোক্সাইড বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে বলেও জানাচ্ছে তারা।

অন্যদিকে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোকে যেকোনো সহায়তা করতে কেন্দ্রীয় সরকার প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

হোয়াইট হাউজ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোর গভর্নরদের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।’

এমআইআর/এডিবি