ন্যাভিগেশন মেনু

জীবনগরে নিখোঁজের ৩ দিন পর গৃহবধূর বিবস্ত্র লাশ উদ্ধার


চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার উথলী গ্রামের কোমরপাড়া মাঠের এক আখ ক্ষেতে তারজিনা খাতুন (২৫) নামে এক গৃহবধূর বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করেছে জীবননগর থানা পুলিশ।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার সময় পুলিশ আখ ক্ষেত থেকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে। তারজিনা খাতুন জীবননগর উপজেলার শিংনগর গ্রামের মেহের পাড়ার আব্দুস সালামের স্ত্রী।

এর আগে সোমবার বিকেলে স্বামী আব্দুস সালাম এবং তারজিনা খাতুন শিংনগর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন। তার নিখোজের পর থেকে স্বামী আব্দুস সালামের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

শিংনগর গ্রামের বাসিন্দা মো. ইমরুল হাসান রাজু জানান, ‘সিংনগর গ্রামের আব্দুস সালাম এবং তার স্ত্রী তারজিনা খাতুন পরের জমিতে কামলা খাটতেন। গত সোমবার বিকেলে কামলা খেটে তারা আর বাড়িতে ফেরেননি।’

উথলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানান, ‘আজ সন্ধ্যায় উথলী গ্রামের কয়েকজন কৃষক মাঠে ঘাস কাটতে যাওয়ার সময় স্থানীয় কোমর পাড়া মাঠের এক আখ ক্ষেতে বিবস্ত্র নারীর মরদেহ দেখতে পায়। পরে এলাকাবাসী সনাক্ত করেন উদ্ধার হওয়া বিবস্ত্র মরদেহ নিখোঁজ হওয়া তারজিনা খাতুনের।’

এ বিষয়ে জীবননগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, ‘আজ সন্ধ্যায় খবর পেয়ে উথলী গ্রামের একটি মাঠ থেকে এক গৃহবধূর বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধারের সময় ওই গৃহবধূর মাথা ও গলাসহ শরীরের একাধিক স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে স্বামী আব্দুস সালাম টাকার জন্য নিজেই তার স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। স্বামী আব্দুস সালামকে গ্রেফতারে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।’

এস কে/এমআইআর/ওআ