ন্যাভিগেশন মেনু

চিন-ভারত সীমান্তে ফের সংঘর্ষ


ভারত-চিনের পূর্ব লাদাখে সীমান্ত বিবাদের আবহেই এবার সিকিম সীমান্তের কাছে নাকু লা-তে সংঘর্ষে জড়িয়েছে দু'দেশের সেনা।

পাঁচদিন আগে ভারত-চিন সেনার মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়েছে সিকিমের নাকু লা-তে। তবে সরকারিভাবে ভারতের পক্ষ থেকে এই বিষয়টিকে খুব একটা গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না বলে জানায় ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, চিনা সৈনিকরা সিকিমে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করার চেষ্টা করেছিল। এ সময় বাধা দেয় ভারতীয় জওয়ানরা। এর থেকেই সংঘর্ষের সূত্রপাত। 

গত ২০ জানুয়ারি এই হাতাহাতি হয় বলে ভারতের তরফ থেকে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। তবে ঘটনাটি স্থানীয় কম্যান্ডাররাই মিটমাট করে নিয়েছে।

সংবাদসংস্থা এএনআই জানায়, সংঘর্ষের ঘটনায় দুই দেশেরই বেশ কয়েকজন সেনা জওয়ান জখম হয়েছেন। তবে চিন তা স্বীকার করেনি।

উল্লেখ্য, পূর্ব লাদাখে সীমান্ত বিবাদ মেটাতে রবিবার (২৪ জানুয়ারি) ভারত-চিন কোর কমান্ডার স্তরের বৈঠক হয়। নবম পর্যায়ের এই বৈঠক সিকিম সীমান্তে ভারত-চিন সেনা জওয়ানদের সংঘর্ষের ঘটনা দু'দেশের সম্পর্কে নয়া মোড় এনে দিলো বলেই মনে করছে কূটনৈতিক মহলের একাংশ।

বর্তমানে পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে। এ নিয়ে পূর্ব সেক্টরে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে এক বছরের মধ্যে দ্বিতীয়বার হাতাহাতির ঘটনা ঘটলো। 

গত বছর মে মাসে নাকু লা-তে সংঘর্ষ হয়। আহত হয় দুই পক্ষের সেনা। কিন্তু তারপরেই ফোকাস সরে যায় পূর্ব লাদাখে। সেখানে দুই দেশের সেনার মধ্যে গত দশ মাস ধরে অচলাবস্থা চলছে। এর মধ্যে ১৫ জুন গালওয়ানে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় ও অজানা সংখ্যক চিনা সেনার মৃত্যু হয়। তারপরেও এক-দুইবার সংঘর্ষ হয়েছে সেনাদের মধ্যে।

বর্তমানে মারাত্মক শীত উপেক্ষা করেও লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় নিজেদের অবস্থান ধরে রেখেছে দুই দেশের সেনা। দফায় দফায় কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা করেও সমাধান হয়নি। 

এডিবি/