ন্যাভিগেশন মেনু

ক্রেতা-বিক্রেতা মাস্ক না পরলে দোকান বন্ধ: মেয়র আতিক

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘ক্রেতা-বিক্রেতা মাস্ক না পরলে দোকান বন্ধ করে দেওয়া হবে। আমাকে ঈদের আগে দোকান বন্ধ করতে বাধ্য করবেন না ‘

বুধবার (৫ মে) বিকেলে গুলশান-১ এর গুলশান শপিং সেন্টার ও ডিএনসিসি মার্কেট পরিদর্শনে গিয়ে মেয়র এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘জীবন ও জীবিকা চালানোর স্বার্থে সরকার শর্তসাপেক্ষে দোকান খোলার সুযোগ দিয়েছিল। দোকান মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ অঙ্গীকার করেছিলেন তারা সরকারের দেওয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান পরিচালনা করবেন। কিন্তু আজ আমি সরেজমিনে এসে দেখলাম বাস্তবতা। অনেকেই দোকান খোলা রেখেছেন মাস্ক পরছেন না, আমাকে দেখে অনেকেই মাস্ক পরছেন এটা কিন্তু ঠিক না। আপনারা নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে এবং আপনার পরিবারকে সুরক্ষিত রাখার জন্য মাস্ক পরুন।’

মেয়র বলেন, ‘মালিক সমিতির লোকেরা অঙ্গীকার করেছিল তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে। তারা বলেছিল এখানে তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র থাকবে, স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকবে, তার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কেটটা খোলা রাখা হয়েছে। কিন্তু আজকে সেই বাস্তবতা কতটুকু পালন হচ্ছে? আমি দোকান মালিক সমিতির সাথে কথা বলেছি, উনারাও আমাকে বলেছেন মেয়র সাহেব আমরা চেষ্টা করছি কিন্তু ব্যর্থ হয়েছি।’

আতিক বলেন, ‘পাঁচ তারকা হোটেলগুলোতে দেখছি হোটেলের ভিতরে ইফতার পার্টি করছেন। সরকার যেখানে আপনাদেরকে বলেছে কোন হোটেলে বসে সার্ভিস দেওয়া যাবে না, হোটেলের ভেতরে অথবা খোলা জায়গায় কোথাও খাওয়া যাবে না। আপনাদের বুঝতে হবে, নিজের যদি সুরক্ষিত থাকি তাহলে আমার পরিবারও সুরক্ষিত থাকবে। পরিবার সুরক্ষিত থাকলে শহর সুরক্ষিত থাকবে, এই দেশ সুরক্ষিত থাকবে।’

এসময় অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন-ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহা. আমিরুল ইসলাম, সচিব রবিন্দ্রশ্রী বড়ুয়া, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুল হামিদ মিয়া, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ।

এমআইআর/ওআ