ন্যাভিগেশন মেনু

করোনা সংক্রমণ রোধে সবকিছু নিয়ন্ত্রণে আনা হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

দেশে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখীতে জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় ও সংক্রমণ ঠেকাতে প্রথম ধাপের মতো ফের সবকিছু নিয়ন্ত্রণের আওতায় আনা হতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনে  বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ কথা জানান তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘করোনা প্রায় নিয়ন্ত্রণে ছিলো কিন্ত গোটা বিশ্বে এর প্রভাব বেড়েই চলেছে। দেশেও করোনার প্রাদুর্ভাব হঠাৎ বেড়ে গেছে। টিকা নেওয়ার পর মানুষের উদাসীনতা বেড়ে গেছে। বিয়ে-পর্যটনসহ নানা কারণে যারা বেশি বেশি ঘুরে বেড়িয়েছেন তারাই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মাস্ক পরাসহ, যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার কোনো বিকল্প নেই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমে করোনাভাইরাস যখন দেখা গেল, যেভাবে আমরা সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করেছিলাম, সেভাবে আবার আমাদেরকে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। সেজন্য কিছু নির্দেশনা আমরা দিয়েছি এবং ধীরে ধীরে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি এটাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে।’

করোনা সংক্রমণ রোধে সীমিত মানুষ নিয়ে কাজ করার অভ্যাস করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয় বেলা ১১টায়। শুরুতেই দ্বাদশ অধিবেশন পরিচালনার জন্য ৫ জন সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়ন দেন স্পিকার। এরপর একাদশ সংসদ অধিবেশনের পর থেকে দ্বাদশ অধিবেশনের আগ পর্যন্ত প্রয়াত সংসদ সদস্য, মন্ত্রী, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের নামে সংসদ শোক প্রস্তাব গ্রহণ করে।

 ওয়াই এ/ওআ