ন্যাভিগেশন মেনু

কক্সবাজারের সৈকতে ভেসে এলো আরেকটি ৩০ ফুট লম্বা তিমি


কক্সবাজারের হিমছড়ি সৈকতে দক্ষিণে ক্ষুদ্রকায় এলাকায় ভেসে এসেছে কয়েকটন ওজনের আরেকটি মৃত তিমি মাছ। তিমিটির দৈর্ঘ্য ৩০ ফুট ও প্রস্থ ২৫ ফুট বলে জানা যায়। এটি অর্ধগলিত অবস্থায় রয়েছে যা দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।

শনিবার (১০ এপ্রিল) সকলা ৬টার দিকে স্থানীয় লোকজন সাগরের পানিতে ভাসমান অবস্থায় এটি দেখে মৎস্য ও পরিবেশ অধিদপ্তরে খবর দেয়। তিমিটি এখনও সাগরতীরে পড়ে আছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের সদর রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা সমীর কুমার সাহা জানান, ‘জোয়ার নেমে যাওয়ার পর তিমিটি বালিতে আটকে যায়। শুক্রবারের তিমির চেয়ে এটি সাইজে ছোট। এটিও ক্ষতবিক্ষত, অর্ধগলিত। ধারণা করা হচ্ছে এটিও আগে মরে ভাসতে ভাসতে ঢেউয়ের তোড়ে তীরে উঠে এসেছে। দুর্গন্ধ বেশি ছড়ানোর আগেই গতকালের মতো এটিও পুঁতে ফেলার উদ্যোগ চলছে।’

এর আগে, শুক্রবার দুপুরের জোয়ারের সাথে ভেসে আসা মরা তিমিটি দিবাগত রাত ১টার দিকে মাটিতে পুতে ফেলা হয়েছে। গবেষণার জন্য হাড় ও অন্য প্রত্যঙ্গ সংগ্রহের আশায় পুঁতে ফেলা স্থানটি সংরক্ষণ করছেন সমুদ্র ও মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট সংশ্লিষ্টরা।

তীরে উঠে আসা মরা প্রাণিটি ব্রাইড হুয়েল এবং এটি প্রাপ্ত বয়স্ক। নীল তিমি গ্রুপের একটি প্রজাতি হল ব্রাইড হুয়েল। এটি আমাদের বঙ্গোপসাগরেরই বাসিন্দা। তিমি সাধারণত দলবেঁধে চলে। কোন কারণে দলছুট হলে অনেক সময় তিমি মারা যায়।

এমআইআর/এডিবি/