ন্যাভিগেশন মেনু

এমবিবিএস পরীক্ষা: ৮টার মধ্যেই পৌঁছানোর অনুরোধ

২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা শুক্রবার (২ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত সারাদেশে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে। করোনা পরিস্থিতিতে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী বহন করায় রাজধানীতে পরিবহন সংকট দেখা দেওয়ায় পরীক্ষার দিন সকাল ৮টার মধ্যে নিজ নিজ কেন্দ্রে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করছে ডিএমপি।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) সকালে ডিএমপি বার্তা পাঠিয়ে এ অনুরোধ জানিয়েছে।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ থেকে পাঠানো বার্তায় বলা হয়, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী বহন করায় পরিবহন সংকট দেখা দিতে পারে। পরিস্থিতি বিবেচনায় ২ এপ্রিল (শুক্রবার) মেডিক্যাল পরীক্ষার্থীদের সকাল ৮টার মধ্যে নিজ নিজ কেন্দ্রে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করছে ডিএমপি।

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এবারের মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি। নকল মুক্ত রাখতে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশপত্র ছাড়া সব ধরনের কাগজ ও ইলেকট্রনিক ডিভাইস আনা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গত বুধবার (৩১ মার্চ) দুপুরে ডিএমপি সদর দফতরে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণকারী সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এক সমন্বয় সভায় ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীদের মাস্ক পরিধান করে কেন্দ্রে আসার জন্য নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রের প্রবেশ পথে তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানার, জীবাণুনাশক অটো স্প্রে মেশিনসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা থাকবে।

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বেশ কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা কেন্দ্রে মোতায়েন থাকবে পর্যাপ্ত পুলিশ। সেই সঙ্গে প্রতিটি কেন্দ্রে থাকবে মোবাইল কোর্ট। পরীক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র ছাড়া অন্যকোনো কাগজ সঙ্গে নিতে পারবে না। পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের সময় সব পরীক্ষার্থীর দেহ তল্লাশী করে প্রবেশ করানো হবে। কেন্দ্র ইনচার্জ ছাড়া কেউ মোবাইল ফোন কাছে রাখতে পারবে না। তল্লাশী কাজে থাকবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা। ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে সব ধরনের গুজব বা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো রুখতে সোশ্যাল মিডিয়াসহ বিভিন্ন অ্যাপস ভিত্তিক বিভিন্ন গ্রুপ (হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার, ভাইভার, ইমু ইত্যাদি) যোগাযোগ মাধ্যম মনিটরিং করবে ডিএমপি’র সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ।

সভায় ডিএমপি কমিশনার বলেন, একটি স্বচ্ছ মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে আমরা সবধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি। যারা যোগ্য তারাই এই পরীক্ষার মাধ্যমে মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পাবে। করোনাভাইরাসের কারণে গণপরিবহনে আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনে সরকারি নির্দেশনা আছে। যার ফলে পরিবহন সংকট দেখা দিতে পারে। পরিস্থিতি বিবেচনায় মেডিকেল পরীক্ষায় অংশ গ্রহণকারীরা অবশ্যই পর্যাপ্ত সময় হাতে নিয়ে কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিতে হবে। যাতে পরীক্ষার্থীরা ২ এপ্রিল (শুক্রবার) সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে পারেন।

আইন-শৃঙ্খলা ডিউটিতে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, পুলিশের যেসব সদস্য মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় ডিউটিতে নিয়োজিত থাকবেন, তাদেরকেও অবশ্যই মাস্ক পরিধানসহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

২ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা মহানগরের ১৫টি কেন্দ্রে অংশগ্রহণ করবেন ৪৭ হাজার শিক্ষার্থী।

 এস এ/ওআ