ন্যাভিগেশন মেনু

এবার আত্মহত্যা, রুখতে জাপানে নিযুক্ত ‘একাকিত্ব মন্ত্রী’


অতিমারী বা কোভিড=১৯ বদলে দিয়েছে গোটা পৃথিবীকে। আর্থিক ও সামজিক দিক দিয়ে নানা অনিশ্চিয়তা তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় জাপানে বেড়েই চলেছে আত্মহত্যা। বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে আত্মহত্যা লাগাতার বাড়ছে।

তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসেবে জাপান নিয়োগ করল ‘একাকিত্ব মন্ত্রী’। এর আগে ২০১৮ সালে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে এমন এক মন্ত্রক চালু করেছে আমেরিকা। এবার সেই পথে হাঁটল জাপান।

এমনিতে জাপানে বরাবরই আত্মহত্যার ঘটনা বেশিই দেখা যায়। কিন্তু করোনার প্রকোপে আরও বেড়েছে এই প্রবণতা। যা ভেঙে দিয়েছে গত এগারো বছরের রেকর্ড।

পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে তাই এমাসেই সেদেশের মন্ত্রিসভায় যোগ হয়েছে নয়া এই দপ্তর। প্রধানমন্ত্রী ইওশিহিদে সুগা মন্ত্রকের দায়িত্বভার দিয়েছেন তেতসুশি সাকামোতোকে। যিনি জাপানের জন্মহার কমে যাওয়া এবং আঞ্চলিক অর্থনীতি বিষয়ক মন্ত্রকেরও দায়িত্বে রয়েছেন।

দায়িত্ব নেওয়ার পরে প্রথম সাংবাদিক সম্মেলনে সাকামোতো জানিয়েছেন, ”প্রধানমন্ত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছেন বিষয়টি খতিয়ে দেখতে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের সঙ্গে আলোচনা করে এবিষয়ে সুসংহত কৌশল তৈরি করা হবে।”

তাঁর আশা, সামাজিক একাকিত্ব ও বিচ্ছিন্নতাকে রুখে মানুষের মধ্যে পারস্পরিক বন্ধন আরও মজবুত করে তুলতে পারবেন তিনি। এখনও পর্যন্ত জাপানে করোনার প্রকোপে পড়েছেন ৪ লক্ষ ২৬ হাজারেরও বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে সাড়ে সাত হাজারেরও বেশি।

অতিমারীর ধাক্কায় কেবল আত্মহত্যা বাড়াই নয়, সেই সঙ্গে বাড়ছে শিশু দারিদ্রও। যে করে হোক, এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ চাইছে জাপান। সেই পথেই প্রথম পদক্ষেপ এই ‘একাকিত্ব মন্ত্রক।’

এস এস