ন্যাভিগেশন মেনু

আন্তঃজেলা নয়, মহানগরীতে বাস চলতে পারে: স্বাস্থ্য মহাপরিচালক

আন্তঃজেলায় বাস চলার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি, তবে মহানগরীতে বাস চালানোর পরামর্শ দিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।

তিনি বলেন, বিশেষজ্ঞদের সুপারিশেই দেশে লকডাউন চলছে, এপ্রিল মাসে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু বেশি থাকলেও এখন কিছুটা কমে এসেছে। করোনা নিয়ন্ত্রণে আরও কিছুদিন গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখতে হবে।

সোমবার (৩ মে) রাজধানীর মহাখালীর ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতালে মেয়র আতিকুল ইসলামের সৌজন্যে দুটি অ্যাম্বুলেন্স এবং একটি লাশবাহী গাড়ি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ পরামর্শ দেন।

স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে দেশের সবচেয়ে আধুনিক আইসিইউ রয়েছে। এখানে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহ আছে, যেগুলোতে আইসিইউ সমমানের সেবা দেওয়া যাবে। এছাড়াও এখানে আমাদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, নার্স আছে। হাসপাতালটি চালুর শুরু থেকেই পরিচালককে আমরা প্রতিনিয়ত নানাভাবে সহযোগিতা করে আসছিলাম। একদম যখন খালি ছিল, তখন আমাদের ডিজি অফিসের স্টোরের ফার্নিচার দিয়ে এখানে কাজ শুরু করেছি। এই হাসপাতাল চালু হওয়ার পর এখানে কোনো অ্যাম্বুলেন্স ছিল না। আমি উপজেলা থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্স এনে রোগী সেবার ব্যবস্থা করেছিলাম। আজ এখানে আরও তিনটি অ্যাম্বুলেন্স যুক্ত হলো। আশা করছি দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে এখানে যারা সেবা নিতে আসবেন তারা এই অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করতে পারবেন।

স্বাস্থ্য ডিজি বলেন, আমরা জানি যে করোনা রোগটা হয় ফুসফুসে। সেই ফুসফুসের বিশেষজ্ঞরাই এখানে আছেন। তারা ঢাকা শহরের মধ্যে সবচেয়ে অভিজ্ঞ ও সবচেয়ে ভালো চিকিৎসক।

এ সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিন, প্রধান নির্বাহী সেলিম রেজাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এডিবি/