ন্যাভিগেশন মেনু

অর্থ সংকটে পাকিস্তানের হাইওয়ে প্রকল্পগুলি স্থগিত

চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকে পাবলিক সেক্টর ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের (পিএসডিপি) আওতাধীন প্রকল্পসমূহ অর্থ  সংকটের কারণে পাকিস্তানের জাতীয় হাইওয়ে কর্তৃপক্ষের (এনএইচএ)  উন্নয়ন প্রকল্পগুলি স্থবির হয়েছে।

এনএইচএভুক্ত ঠিকাদাররা তহবিল ছাড় না করার কারণে গত তিন মাস ধরে অর্থ পায়নি এবং এর ফলস্বরূপ, তারা চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক কড়িডোর (সিপিইসি) অধীনে কার্যকর হওয়া অবকাঠামোগত প্রকল্পগুলিকে ধীরগতিতে এগুনো বা পরিত্যক্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন।  

ক্ষতিগ্রস্থ প্রকল্পগুলি বেশিরভাগ পাঞ্জাব এবং বালুচিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ায় অবস্থিত। সরকারের তহবিল ছাড় না করায় এনএইচএ উন্নয়ন প্রকল্পগুলির অধীনে জাতীয় সড়ক ও সেতুর প্যাকেজ-৬ পুনর্বাসন অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

পাকিস্তান সরকার ২০২০-২১-এ এনএইচএর জন্য ১১৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল, তবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় তহবিলের মাত্র ৩০ শতাংশ ছাড় দিয়েছিল। এতে করে সময় মতো প্রকল্পগুলি সম্পন্ন করা বিভাগের পক্ষে কঠিন হয়ে পড়ে।

যোগাযোগ মন্ত্রকের এক কর্কর্র মতে, তৃতীয় প্রান্তিকে তহবিলের জানুয়ারিতে ছাড় দেওয়ার কথা হয়েছিল।তবে এপ্রিলে তা ছাড় দেওয়া হয়।

এ সম্পর্কিত মন্ত্রকগুলি অর্থবছরের চারটি প্রান্তিকের শুরুতে পিএসডিপি তহবিল এনএইচএ-তে ছাড় করার  করার কথা ছিল। ঠিকাদাররা তহবিলের পাবার অপেক্ষায় থাকে।

তহবিল  না পেলেও তারা বাকীতে নির্মাণ সামগ্রী ক্রয় করে এবং কখনও কখনও বকেয়া টাকা পরিশোধ না করার কারণে প্রকল্পগুলির কাজ স্থগিত করে দেয়।

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে একই ঘটনা ঘটেছিল যখন ঠিকাদারদের পাওনা পরিশোধ না করা হয় এবং তারা প্রকল্পগুলির কাজ বন্ধ করে দেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এনএইচএ-র একজন সিনিয়র আধিকারিক জানান যে, তহবিল ছাড়ে বিলম্বের জন্য পরিকল্পনা বিভাগই দায়বদ্ধ।

এস এস