ন্যাভিগেশন মেনু

অবাক কাণ্ড পাকিস্তানে, টক শোতে এমপিকে থাপ্পড়


অবাক কাণ্ড পাকিস্তানে, টক শোতে এমপিকে থাপ্পড় মেরে দিলেন অংশগ্রহনকারী অপরজন। দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা বাড়তে থাকলে ফেরদৌস কাদির খানকে চড় মেরে বসেন আর তারপর শুরু হয় দু’জনের মধ্যে হাতাহাতি।

পাকিস্তানে একটি টিভি চ্যানেলে টক শোতে সংসদ সদস্যকে থাপ্পড় মারার ঘটনা ঘটেছে। যা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার বিষয়ক বিশেষ সহকারী তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের নেতা ফেরদৌস আশিক আওয়ান পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) নেতা আবদুল কাদির খান মান্দোখেলের সঙ্গে হাতাহাতি করছেন।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) পাকিস্তানি সংবাদ চ্যানেল এক্সপ্রেস নিউজের একটি অনুষ্ঠানে এই ঘটনা । ‘কাল তাক’ নামের একটি অনুষ্ঠানে দুর্নীতি নিয়ে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ওই দুই নেতাকে। 

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে দুই নেতার মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় শুরু হয়। অনুষ্ঠানে পাকিস্তান ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্য (এমএনএ) আব্দুল কাদির খান সরাসরি ফেরদৌস আওয়ানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন। 

ওই অভিযোগের জবাবে ফেরদৌস তার কাছে প্রমাণ চান এবং বলেন যে তিনি মানহানির মামলা করবেন।এক পর্যায়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা বাড়তে থাকলে ফেরদৌস কাদির খানকে চড় মেরে বসেন আর তারপর শুরু হয় দু’জনের মধ্যে হাতাহাতি। 

ঘটনা দেখে তাজ্জব হয়ে যান অনুষ্ঠনের সঞ্চালক জাভেদ চৌহান। ঘটনা দাঁড়িয়ে দেখা ছাড়া আর কিছু করতে পারেননি তারা।    

ঘটনার পর ফেরদৌস  আওয়ান টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেখানে তিনি বলছেন, “কাদির খান ক্রমাগত তাকে খারাপ কথা বলছিলেন।” তিনি অভিযোগ করেন, অনুষ্ঠানের বিরতির সময় সংসদ সদস্য কাদির খান তাকে বাবা তুলে গালি দেন ও হুমকি দেন। 

ফেরদৌস জানান, এ অবস্থায় নিজের সম্মান বাঁচাতে তিনি কাদির খানের ওপর হাত তোলেন। ঘটনার ছোট একটি ভিডিও ফাঁস করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলছেন, “এই ঘটনার পুরো ভিডিও প্রকাশ্যে আসা উচিৎ। যাতে সবাই বুঝতে পারে কেন তিনি চর মারতে বাধ্য হয়েছিলেন। তবেই সবাই সত্যটা বুঝবে। ”

এস এস