NAVIGATION MENU

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক
Dec 08, 2019

অপরাধ

রুম্পা হত্যায় সাবেক প্রেমিক সৈকতকে গোয়েন্দাদের  জিজ্ঞাসাবাদ

রুম্পা হত্যায় সাবেক প্রেমিক সৈকতকে গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদ

চাঞ্চল্যকর রুম্পা হত্যার ঘটনায় ‘সাবেক প্রেমিক’ আবদুর রহমান সৈকতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) উপকমিশনারের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার (২০) মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে রবিবার (৮ ডিসেম্বর)। এই মামলায় রুম্পার সাবেক প্রেমিক সৈকত নামে এক যুবককে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ওবায়দুর রহমান জানান, রাজধানীর স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রম্পার সঙ্গে সেদিন সিদ্ধেশ্বরীর ওই ভবনে প্রবেশ করেছিলেন সাবেক প্রেমিক সৈকত।ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সৈকতকে গোয়েন্দা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তাদের কী সম্পর্ক ছিল, তা কতদিনের। কতদিন আগে কথা হয়েছিল, সম্পর্কের বিচ্ছেদ, এর সঙ্গে আর কেউ জড়িত থাকলে তাদের নাম জানেন কিনা ইত্যাদি বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।গোয়েন্দা সূত্র জানায়, ’সৈকত স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর সাবেক ছাত্র। সে রুম্পার সাবেক প্রেমিক। মোবাইলের কললিস্টের সূত্র ধরে তাকে আটক করা হয়। সে রুম্পাকে শেষ ফোন করেছিল। তবে তাকে কোথা থেকে আটক করা হয়েছে তা দায়িত্বশীল কেউ নিশ্চিত করেনি।’রুম্পার বাবা পুলিশের ইন্সপেক্টর রোকন উদ্দিন বলেন, ’তার মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে হত্যা করে কেউ ফেলে দিয়েছে। ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করলেই বেরিয়ে আসবে। মোবাইলের কল লিস্ট দেখলে সবকিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে।’রুম্পার স্বজনরা জানান, ঘটনার দিন রুম্পা দুটি টিউশনি করে সন্ধ্যায় বাসায় ফেরেন। পরে কাজ আছে বলে বাসা থেকে বের হন। বাসা থেকে নিচে নেমে তার ব্যবহৃত মুঠোফোন ও স্যান্ডেল বাসায় পাঠিয়ে দিয়ে এক জোড়া পুরোনো স্যান্ডেল পায়ে দিয়ে বেরিয়ে যান।উল্লেখ্য, বুধবার (৪ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে সিদ্ধেশ্বরীর দুই ভবনের মাঝে রুম্পার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে হত্যা মামলা করেছে।এমআইআর / এস এস...


Dec 08, 2019

খেলা

 বিকেলে পারফর্ম, ঢাকায় সালমান ও ক্যাটরিনা

বিকেলে পারফর্ম, ঢাকায় সালমান ও ক্যাটরিনা

ঢাকায় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মাতাতে রবিবার সকালে ঢাকায় এসেছেন বলিউডের দুই স্টার সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টায় (ভারতীয় সময় সকাল ৮টা) ভারত থেকে যাত্রা শুরু করে সকাল সোয়া ৯টার দিকে রাজধানী ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন এই দুই বলিউড তারকা।এদিন বিকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে পর্দা উঠবে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গ করে এবারের বিপিএলকে দেয়া হয়েছে বিশেষ মর্যাদা।আর এ আসরটিকে আরও বেশি জাঁকজমকপূর্ণ ও আকর্ষণীয় করে তুলতে তারকাবহুল এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।যেখানে পারফরম করবেন বলিউডের বিখ্যাত এ দুই তারকা সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে পারফরম করবেন তারা দুজন।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হওয়ার পর একদম শেষ দিকে মূল আকর্ষণ হিসেবে মঞ্চে উঠবেন এ দুই বলিউড তারকা। প্রথমে একক পারফরম্যান্স করবেন দুজনে। এর পর আবার দুজনের দ্বৈত পারফরম্যান্স দিয়ে শেষ হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। সালমানের আগে মঞ্চে উঠবেন ক্যাটরিনা।এস এস...


Dec 07, 2019

অপরাধ

রুম্পার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ২-১ দিনের মধ্যেই

রুম্পার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ২-১ দিনের মধ্যেই

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার রুবাইয়াত শারমিন ওরফে রুম্পার মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দুই-একদিনের মধ্যেই জমা দেওয়ায় কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের চিকিৎসকেরা।এ ব্যাপারে রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, যদিও এ ঘটনায় এখনও কোনো ক্লু বের করতে পারেনি পুলিশ।তবে আমাদের টিম রাতদিন কাজ করছে। অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রী রুম্পা হত্যার ক্লু বেরিয়ে আসবে।তিনি আরো বলেন, রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় নিহতের পরিবারের লোকজন ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে আশপাশের ভবনের সিসি টিভি ফুটেজসহ কয়েকটি বিষয়কে সামনে রেখে তদন্ত চলছে।বুধবার (০৪ ডিসেম্বর) রাত পৌনে ১১টার দিকে সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনের দুই ভবনের মাঝে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।তাৎক্ষণিকভাবে মৃতদেহ দেখে আশেপাশের লোকজন কেউ চিনতে না পারায়, শনাক্তের জন্য নিহতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহ করে পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার (০৫ ডিসেম্বর) থানায় গিয়ে নিহতের ছবি দেখে স্বজনেরা মরদেহ শনাক্ত করেন যে, তিনি বেসরকারি স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী।নিহত রুবাইয়াত শারমিন ওরফে রুম্পার বাবা হবিগঞ্জের একটি পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক। বাবা হবিগঞ্জে থাকলেও মা ও পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে ঢাকায় থাকতেন তিনি।মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদন সম্পর্কে ঢামেক-এর ফরেনসিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ জানান, আমরা দুই-একদিনের মধ্যেই রুম্পার মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করবো। তবে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেতে কিছু সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন তিনি।তার ভাষ্য, ময়নাতদন্তের সময় নিহতের শরীর থেকে হাইভেজেনাল সপ সংগ্রহ করা হয়েছে মৃত্যুর আগে তিনি ধর্ষিত হয়েছিলেন কি না! এছাড়া ভিসেরা সংগ্রহ করা হয়। সেসব পরীক্ষার প্রতিবেদন আসতে একটু দেরি হয়। সেগুলো হাতে পেলে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেওয়া হবে।এমআইআর / এস এস...


Dec 07, 2019

অপরাধ

রুম্পার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ২/১ দিনের মধ্যেই

রুম্পার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ২/১ দিনের মধ্যেই

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার রুবাইয়াত শারমিন ওরফে রুম্পার মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দুই-একদিনের মধ্যেই জমা দেওয়ায় কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের চিকিৎসকেরা।এ ব্যাপারে রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, যদিও এ ঘটনায় এখনও কোনো ক্লু বের করতে পারেনি পুলিশ।তবে আমাদের টিম রাতদিন কাজ করছে। অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রী রুম্পা হত্যার ক্লু বেরিয়ে আসবে।তিনি আরো বলেন, রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় নিহতের পরিবারের লোকজন ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে আশপাশের ভবনের সিসি টিভি ফুটেজসহ কয়েকটি বিষয়কে সামনে রেখে তদন্ত চলছে।বুধবার (০৪ ডিসেম্বর) রাত পৌনে ১১টার দিকে সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনের দুই ভবনের মাঝে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।তাৎক্ষণিকভাবে মৃতদেহ দেখে আশেপাশের লোকজন কেউ চিনতে না পারায়, শনাক্তের জন্য নিহতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহ করে পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার (০৫ ডিসেম্বর) থানায় গিয়ে নিহতের ছবি দেখে স্বজনেরা মরদেহ শনাক্ত করেন যে, তিনি বেসরকারি স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী।নিহত রুবাইয়াত শারমিন ওরফে রুম্পার বাবা হবিগঞ্জের একটি পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক। বাবা হবিগঞ্জে থাকলেও মা ও পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে ঢাকায় থাকতেন তিনি।মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদন সম্পর্কে ঢামেক-এর ফরেনসিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ জানান, আমরা দুই-একদিনের মধ্যেই রুম্পার মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করবো। তবে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পেতে কিছু সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন তিনি।তার ভাষ্য, ময়নাতদন্তের সময় নিহতের শরীর থেকে হাইভেজেনাল সপ সংগ্রহ করা হয়েছে মৃত্যুর আগে তিনি ধর্ষিত হয়েছিলেন কি না! এছাড়া ভিসেরা সংগ্রহ করা হয়। সেসব পরীক্ষার প্রতিবেদন আসতে একটু দেরি হয়। সেগুলো হাতে পেলে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেওয়া হবে।এমআইআর / এস এস...


Dec 07, 2019

জাতীয়

কুর্মিটোলা হাসপাতালের সামনে দোতলা বাসে আগুন

কুর্মিটোলা হাসপাতালের সামনে দোতলা বাসে আগুন

রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালের সামনে একটি বিআরটিসি দোতলা বাসে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার বিকাল ৩টা ৫০ মিনিটে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গেছে।দোতলা বাসটিতে আগুন লাগার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিসের সদরদপ্তরের দায়িত্বরত কর্মরত লিমা খানম ।লিমা খানম বলেন, খবর পাওয়া মাত্র আমাদের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গেছে। আগুন এখনো নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। কীভাবে আগুন লাগলো সে বিষয়েও কোনো রিপোর্ট পাইনি আমরা।তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের সংবাদ পাননি বলে জানান তিনি।ওআ / এস এস...


Dec 07, 2019

জাতীয়

ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায়ও রায় লেখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায়ও রায় লেখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

শান্তি ও উন্নয়নের জন্য আইন, নির্বাহী ও বিচার বিভাগের সমন্বয়ের বিকল্প নেই। তাই ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায়ও মামলার রায় লেখার বিষয় বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।শনিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিচার বিভাগীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।প্রধানমন্ত্রী বলেন, সব নাগরিকেরই ন্যায় বিচার পাওয়ার অধিকার আছে। সম্প্রতি বেশকিছু ঘটনার দ্রুততম রায় দেয়ায় বিচার বিভাগের ওপর মানুষের আস্থা বহুগুণ বেড়েছে। রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মধ্যে সমন্বয় প্রয়োজন।সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।এছাড়া এতে অতিথি হিসেবে একাধিক মন্ত্রী ও সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা উপস্থিত ছিলেন।এমআইআর / এস এস...


Dec 06, 2019

অপরাধ

রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের

রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন তার সহপাঠীরা। শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ কমসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন শিক্ষকরাও। তাদের দাবি, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সিদ্ধেশ্বরী শাখার শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ভিকারুননেসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে যান। সেখানে তারা মানববন্ধন করেন। এ সময় তারা রুম্পা হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত বিচার দাবি করেন।বুধবার সিদ্ধেশ্বরী এলাকার আয়শা শপিংমলের পাশে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রথমে তার মরদেহ অজ্ঞাত হিসেবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নেয়া হলেও, পরবর্তীতে তার পরিচয় জানা যায়। রুম্পার বাবা হবিগঞ্জে পুলিশের একজন পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত।ঘটনার পর থেকে রুম্পার মরদেহ নিয়ে চলছে রহস্য। হত্যা নাকি আত্মহত্যা তার জট এখনো খোলেনি। তবে রুম্পার সহপাঠীরা বলছেন, একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর এক শিক্ষার্থীর সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বেশ কিছুদিন ধরে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। তাদের ধারণা রুম্পাকে হত্যা করা হতে পারে।ঘটনার দিন পুলিশ বাদী হয়ে রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য আলামত সংগ্রহ করে তা পরীক্ষা করা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, ময়না তদন্তের প্রতিবেদন হাতে আসার পরই হত্যা না আত্মহত্যা তার রহস্য বেরিয়ে আসবে।এদিকে, দ্রুত বিচারের দাবিতে শনিবারও স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।ওআ / এস এস...


Dec 06, 2019

জাতীয়

সামাজিক অগ্রগতি নিয়ে বাংলাদেশ পোস্ট ফ্রেন্ডস ফোরামের আলোচনা সভা

সামাজিক অগ্রগতি নিয়ে বাংলাদেশ পোস্ট ফ্রেন্ডস ফোরামের আলোচনা সভা

সামাজিক অগ্রগতি ও দায় বদ্ধতা নিয়ে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালকে সম্পৃক্ততা বিষয়ে ইংরেজি দৈনিক বাংলাদেশ পোস্ট ফ্রেন্ডস ফোরাম শুক্রবার এক আলোচনা সভার আয়োজন করে।শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর তেজগাঁও লিংক রোড বাংলাদেশ পোস্ট অফিস কক্ষে এ আলোচনা অনুষ্ঠানে  সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পোস্ট এর প্রধান সম্পাদক শরীফ শাহাব উদ্দিন ।আলোচনার বিষয়ে ছিল- সামাজিক অগ্রগতি নিয়ে কাজ করা, মাদক প্রতিরোধ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকাশ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন এবং গুজবের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা।ওআ/ এস এস...


Dec 06, 2019

অন্যান্য খবর

হাাবিবুল্লাহ মিজানকে হত্যার হুমকি, ক্র্যাবের নিন্দা ও প্রতিবাদ

হাাবিবুল্লাহ মিজানকে হত্যার হুমকি, ক্র্যাবের নিন্দা ও প্রতিবাদ

বাংলাদেশ পোস্টের বিশেষ প্রতিনিধি ও বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের ( ক্র্যাব) সদস্য হাাবিবুল্লাহ মিজানকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ক্র্যাব কার্যনির্বাহী কমিটি।বিভিন্ন সময়ে দুর্নীতি, অনিময় নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশের জের ধরে মুঠোফোনে (০১৬১১-৭৮৩৯৩৯) আনিসুর রহমানের পরিচয়ে এক ব্যক্তি হাাবিবুল্লাহ মিজানকে এ হত্যার হুমকি দেয়।ক্র্যাব সভাপতি আবুল খায়ের ও সাধারণ সম্পাদক দীপু সারোয়ার এক বিবৃতিতে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেন।তারা বলেন, একজন পেশাদার সাংবাদিককে এভাবে হত্যার হুমকি দিয়ে হয়রানি করা মত প্রকাশের পরিপন্থী। এতে বাক স্বাধীনতা রুদ্ধ হয়। এ ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন।বিবৃতিতে ক্র্যাব নের্তৃবৃন্দ হত্যার হুমকিদাতাকে চিহ্নিত করে আইনানুগত ব্যবস্থা নিতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্ববান জানান।ওআ / এস এস...


Dec 06, 2019

জাতীয়

নারীদের বাস চলাচলে বিপদ এড়াতে পুলিশের ৯ পরামর্শ

নারীদের বাস চলাচলে বিপদ এড়াতে পুলিশের ৯ পরামর্শ

গণপরিবহনে নারীদের প্রায়ই নানা হেনস্থার শিকার হতে হয় । তাই গাড়িতে নিরাপদে চলাচলের জন্য মেয়েদের কিছু পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ সদরদফতরের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ ।পরামর্শগুলো নিম্নরূপ:১. কোনও গাড়িতে যাত্রীসংখ্যা ৫-৭ জনের কম হলে সেই গাড়ি ভ্রমণের বিষয়ে সতর্ক থাকুন অথবা অধিক যাত্রী সম্বলিত গাড়ির জন্য অপেক্ষা করুন।২. আপনি যত ক্লান্তই থাকুন না কেন. একা ভ্রমণের সময় গাড়িতে কিছুতেই ঘুমাবেন না।৩. গাড়িতে ওঠার সময় গাড়ি যাত্রীতে পূর্ণ থাকলেও বিভিন্ন স্টপেজে যাত্রী নামতে নামতে যদি যাত্রীসংখ্যা ১০ এর কাছাকাছি পৌঁছে যায় তাহলে গাড়ি থেকে নামার আগ পর্যন্ত অত্যন্ত সতর্ক থাকুন।৪. এমন পরিস্থিতিতে গাড়ির এমন কোনও সুবিধাজনক সিটে বসুন যেখান থেকে আপনি গাড়ির হেলপার, কন্ডাক্টর ও ড্রাইভারসহ অন্যান্য যাত্রীর ওপর সজাগ দৃষ্টি রাখতে পারবেন।৫. প্রয়োজনে আপনার পরিবারের কাউকে অথবা নির্ভরযোগ্য কাউকে মোবাইলফোনে কল করে একটু উচ্চশব্দে (গাড়ির ভেতরে থাকা অন্যান্য যাত্রীদের শুনিয়ে শুনিয়ে) আপনার গাড়ির নাম, বর্তমান অবস্থান এবং গন্তব্যস্থল সম্পর্কে জানিয়ে রাখুন।এমনকি সে মুহূর্তে গাড়িতে কতজন যাত্রী অবস্থান করছে তার সংখ্যা এবং গাড়ির স্টাফসহ যাত্রীদের সংক্ষিপ্ত বিবরণও জানিয়ে রাখতে পারেন। এতে গাড়ির ভেতরে থাকা কারও মনে কোনও অসৎচিন্তা ও পরিকল্পনা থাকলে তারা ভয় পাবে।৬. কোনও স্টপেজে যাত্রীসংখ্যা আরও কমে পাঁচের নিচে চলে আসার উপক্রম হলে সেটি আপনার গন্তব্যস্থল না হলেও অন্যান্য যাত্রীদের সঙ্গে সেই স্টপেজেই নেমে পড়ুন এবং আপনার পরিবারের কাউকে মোবাইলে কল করে সেখানে এসে আপনাকে নিয়ে যেতে বলুন।৭. আপনাকে নিতে আসা ব্যক্তিটি ওই স্থানে না আসা পর্যন্ত আপনার সঙ্গে থাকার জন্য যাত্রীদের মধ্য থেকে আপনার দৃষ্টিতে নির্ভরযোগ্য কাউকে অনুরোধ করতে পারেন।৮. কেউ যদি আপনাকে সাহায্য করতে না চায় কিংবা যদি অনিরাপদ বোধ করেন তাহলে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য নিন।৯. এছাড়াও গাড়িতে যাত্রীর সংখ্যা পাঁচের কাছাকাছি থাকা অবস্থায় যদি গাড়ির ভেতরে থাকা কারও মধ্যে অস্বাভাবিক কোনও চঞ্চলতা লক্ষ্য করেন এবং প্রয়োজন ছাড়াই গাড়ির দরজা এবং জানালা বন্ধ করে দিতে দেখেন, তাহলে দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য...


Dec 06, 2019

শিক্ষা ও সংস্কৃতি

দক্ষ জনশক্তি তৈরীতে আসছে কর্মসংস্থান অধিদপ্তর

দক্ষ জনশক্তি তৈরীতে আসছে কর্মসংস্থান অধিদপ্তর

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রাক্কালে দক্ষ জনশক্তি তৈরীতে সরকার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কর্মসংস্থান অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।আজ শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের উইন্ডি হলে “স্কিল এন্ড ফিউচার অব ওয়ার্ক” শীর্ষক জাতীয় সম্মেলনে গেস্ট অব অনার হিসেবে বক্তৃতায় এ কথা বলেন।মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, এটুআই, ইউনিসেফ এবং জেনারেশন আনলিমিটেড এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, নতুন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং সেগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, এনজিও সকলকে দায়িত্ব নিতে হবে।দক্ষ জনশক্তি তৈরী করে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্টের সুবিধা নিয়ে সরকার টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য মাত্রা সহজে অতিক্রম করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের মাইন্ড সেট দরকার। আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তৈরী করতে তিনি শিশুদের আগ্রহের ওপর ছেড়ে দেয়ার কথা বলেন।শিক্ষার জন্য বাবা-মায়ের প্রতি সন্তানকে চাপ না দেয়ার পরামশ দেন। যে বিষয়ে শিশুর মনোযোগ বা আগ্রহ সে অনুযায়ী শিক্ষার ব্যবস্থা গ্রহণে মা-বাবাদের প্রতি আহবান জানান।সম্মেলনে তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়ার সচিব এন এম জিয়াউল আলম এর সভাপতিত্বে তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক সমন্বয়ক এবং জেনারেশন আনলিমিটেড এর চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ, ইউনিসেফ বাংলাদেশ এর প্রধান নির্বাহী তাসিন আহমেদ এবং একশন এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা দেন অতিরিক্ত সচিব এবং এটুআই ইনোভেট ফর অল এর প্রকল্প পরিচালক মোঃ আব্দুল মান্নান।ওয়াই এ / এস এস...


Dec 06, 2019

জাতীয়

দুর্নীতি মামলায় সরকারের কিছু করণীয় নেই:  কাদের

দুর্নীতি মামলায় সরকারের কিছু করণীয় নেই: কাদের

খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সরকারের কিছু করার নেই বলে জানিয়ে দিলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘এটা কোনও রাজনৈতিক মামলা নয়, এটা হলো দুর্নীতির মামলা।দুর্নীতির মামলায় সরকারের কোনও করণীয় নেই। কারণ, রাজনৈতিক মামলা হলে সরকার রাজনৈতিকভাবে মুক্তির কথা বিবেচনা করতে পারতো। তারা বলে, সরকার রাজনৈতিক কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিচ্ছে না, বিষয়টি সত্যের অপলাপ।’শুক্রবার (০৬ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের দপ্তর উপ-কমিটির সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আদালত প্রাঙ্গণে তারা রণাঙ্গন সৃষ্টি করেছে। আদালতের ভেতরে হট্টগোল করেছে। আমি মনে করি, আদালতের ভেতরে তারা যে ঔদ্ধত্য দেখিয়েছেন সেটা ক্ষমার অযোগ্য।’খালেদা জিয়া জেলে রাজার হালে আছেন’ প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ওপরে চাপ সৃষ্টি করেছে বলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যখন কথা বলেন তিনি জেনেশুনেই বলেন। তারা (বিএনপি নেতারা) কী বলছেন সেটা বিবেচনা করে কথা বলেন না। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) যেটা বলেন সেটা নীতিগতভাবে বলেন।’এছাড়া আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় সম্মেলনে দুই শীর্ষ পদে (সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক) কোনো পরিবর্তন আসছে কি-না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, একটা পদে কোনো পরিবর্তন আসবে না। সেটা হচ্ছে আমাদের পার্টির সভাপতি। আমাদের সভাপতি দেশরত্ন শেখ হাসিনা। তিনি ছাড়া আমরা কেউই দলের জন্য অপরিহার্য না। তিনি এখনও আমাদের জন্য প্রাসঙ্গিক অপরিহার্য। তৃণমূল পর্যন্ত সবাই তাঁর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ।তিনি আরও বলেন, ‘এর পরের পদটা কাউন্সিলরদের মাইন্ড সেট করে দেয়। সেটাও তিনি (সভাপতি) ভালো করে জানেন। আর দল কীভাবে চলবে, কাকে দিয়ে চলবে, সেটাও তিনি জানেন। তিনি যেটা ভালো মনে করবেন সেটাই করবেন। পরিবর্তন করলেও তাঁর ইচ্ছা, তিনি ডিসাইড করবেন এ ব্যাপারে কারো কোনো কথা থাকবে না। পরিবর্তন হলেও আমরা স্বাগত জানাবো, আর তিনি যদি আমাকে রাখেন সেটাও তাঁর ইচ্ছা। পার্সোনালি আই এম নট ইন্টারেস্টেড’, বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।এসময় দফতর উপ-কমিটির আহ্বায়ক আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম...


Dec 06, 2019

জাতীয়

কৃষি আজ বাণিজ্যিক কৃষিতে উঠে এসেছেঃ কৃষি মন্ত্রী

কৃষি আজ বাণিজ্যিক কৃষিতে উঠে এসেছেঃ কৃষি মন্ত্রী

কৃষি উন্নয়ন গবেষণায় সাফল্যের ফলে দেশ আজ খাদ্যে উদ্বৃত্ত। কৃষক দরদি মানবিক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র প্রজ্ঞা,দূরদর্শিতা ও সময়োপযোগি সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলে কৃষি আজ বাণিজ্যিক কৃষিতে উঠে এসেছে।বঙ্গবন্ধু কন্যা কৃষকের প্রতি তার যে দরদ তার প্রমান আবারও রেখেছেন ৫ম বারের মত সারের মূল্য হ্রাস করে বলে জানিয়েছেন, কৃষি মন্ত্রী ড.মোঃ আব্দুর রাজ্জাক।আজ শুক্রবার কৃষি মন্ত্রী ড.মোঃ আব্দুর রাজ্জাক  রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের সেচ ভবনে ‘বঙ্গবন্ধু কৃষকের বাজার’ কৃষক কর্তৃক সরাসরি বাজারজাতকৃত নিরাপদ সবজির হাট এর শুভ  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।কৃষি মন্ত্রী বলেন, এখন আমাদের লক্ষ্য নিরাপদ ও পুষ্টিমান সম্পন্ন খাদ্য নিশ্চিত করা। এই লক্ষকে সামনে রেখে আজকে নিরাপদ সবজির জন্য কৃষকের বাজার এর আয়োজন।বিগত এক বছর ধরে এসব কৃষকদের নিবির পর্যবেক্ষণে রেখে তাদের উৎপাদিত পন্য এই হাটে ভোক্তাদের জন্য আনা হয়েছে। এই বাজারে বিক্রির জন্য যে সব সবজি আনা হয়েছে এতে কোন ধরনের সার বা কিটনাশক ব্যবহার করা হয়নি,বলাচলে নিরাপদ সবজি।মন্ত্রী বলেন; নিরাপদ খাদ্যের জন্য সচেতনতার বেশি প্রয়োজন। কৃষির উন্নয়নের ওপর নির্ভর করে শিল্পের উন্নয়ন। কৃষিজাত পণ্যের প্রক্রিয়াজতের শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের মাধ্যমে কর্মসংস্থানসহ এই শিল্পটি প্রসারিত হবে। এবছর এই হাটে ভোক্তাদের যে সাড়া পড়েছে আগামীতে আরও বড় পরিষরে এই হাটের আয়োজন করা হবে। এছাড়া প্রতিটি উপজেলার দুটি করে গ্রামকে নিরাপদ সবজির গ্রাম হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে এবং প্রতিটি জেলার বাজারে একটি করে নিরাপদ সবজি কর্ণার থাকবে যেখানে চাষী নিরাপদ সবজি বিক্রি করবে।এতে করে কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাবেন। ভবিষতে এবাজার সাত দিন করে করা হবে। এবং এ বাজারের পন্যের মানের তদারকি করছে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ।কৃষি সচিব বলেন; পন্যের ন্যায্য মূল্য পাওয়া কৃষকের অধিকার।  সরকার কৃষকের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।বিএডিসি ৮০ হাজার কন্ট্রাকট ফার্মারের মাধ্যমে নিরাপ খাদ্য উৎপাদনের উদ্যোগ নিয়েছে। এটি আধুনিক কৃষির পথচলার শুরু।বিশ্ব খাদ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডি সিম্পসন কুটনৈতিক পাড়ায় এরকম একটি হাটের ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ জানান। মেলার উদ্বোধনের পরে মন্ত্রী মেলার স্টল পরিদর্শন করেন এবং স্টলের কৃষক ভাইদের সাথে কথা...


Dec 05, 2019

জাতীয়

দেশে গণতন্ত্র এখন মজবুত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিতঃ রাষ্ট্রপতি

দেশে গণতন্ত্র এখন মজবুত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিতঃ রাষ্ট্রপতি

সকল চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে আজ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে গণতন্ত্র এখন মজবুত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত বলে উল্লেখ করলেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) চতুর্থ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে আমাদের উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের পথ রুদ্ধ হয়। বন্ধ হয় মানুষের বাক-মতামত ও চিন্তার স্বাধীনতা।ইতোমধ্যে আমাদের স্বাধীনতার ৪৮ বছর অতিক্রান্ত হয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধে রাজনৈতিক স্বাধীনতার পাশাপাশি অর্থনৈতিক স্বাধীনতার যে লক্ষ্য ছিল তা আজও আমরা পুরোপুরি অর্জন করতে পারিনি। প্রধানমন্ত্রী স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে সামনে রেখে একটি তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক জ্ঞাননির্ভর দেশ গঠনে ‘রূপকল্প ২০২১’ ও ‘রূপকল্প ২০৪১’ ঘোষণা করেছেন।এসব মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমাদের নিরলস প্রচেষ্টা চালাতে হবে। আজকের শিক্ষিত তরুণরাই এ কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। এ আমার দৃঢ় বিশ্বাস।তিনি বলেন, প্রকৌশল শিক্ষা যদিও হাতেকলমে, তবুও এখানেও সৃজনশীলতার প্রচুর সুযোগ রয়েছে। প্রকৌশলীদের জ্ঞানের ভিত্তি সুদৃঢ় করতে যুগোপযোগী পাঠক্রম ও উন্নত পাঠদানের ব্যবস্থা থাকতে হবে।রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, প্রকৌশলীগণ উন্নয়নের কারিগর। তাদের মেধা, মনন ও সৃজনশীল চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসে টেকসই উন্নয়নের রূপরেখা। তাই প্রকৌশলীদের চিন্তা ও চেতনায় থাকতে হবে দূরদর্শী চিন্তার সুস্পষ্ট প্রতিফলন।এবারের সমাবর্তনে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করা দুই হাজার ২৩১ জন শিক্ষার্থীকে ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী।এমআইআর / এস এস...


Dec 05, 2019

জাতীয়

আদালতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: আইনমন্ত্রী

আদালতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: আইনমন্ত্রী

‘বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা আদালতে বিশৃঙ্খলা করেছে। যা কোনোমতেই কাম্য নয়। বিএনপির কাছে দেশের কোনো প্রতিষ্ঠানই নিরাপদ নয়। আইনের শাসনের প্রতি তাদের শ্রদ্ধাবোধ নেই। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’ জানালেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।বৃহস্পতিবার (০৫ ডিসেম্বর) গুলশানের নিজ বাসায় সাংবাদিকদের আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় উচ্চ আদালতে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের বিশৃঙ্খলা ও হট্টগোলের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান তিনি।উল্লেখ্য জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিকে কেন্দ্র করে আদালতকক্ষে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের বিশৃঙ্খলা ও হট্টগোল করে।ওআ / এস এস...


Dec 05, 2019

আইন আদালত

পরকীয়া মামলায় খালেদার আইনজীবী কায়সার কামাল কারাগারে

পরকীয়া মামলায় খালেদার আইনজীবী কায়সার কামাল কারাগারে

কড়া দাওয়াই সত্বেও যৌন হেনস্থা রোখা যাচ্ছে না । এতিদিনই মিলছে এ ধরনের অভিযোগ। এবার এ কাজে জড়িয়ে পুলিশের জালে আটকালো তিন বিশিষ্ট জন।বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা আইনজীবী ও দলের কেন্দ্রীয় কমিটির আইনবিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল পরকীয়ার অভিযোগে করা এক মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন। মামলায় অভিযোগ, সহকর্মী আরেক আইনজীবীর স্ত্রীর সঙ্গে কামাল কায়সারের পরকীয়ার সম্পর্ক রয়েছে।গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকার কলাবাগান থানা-পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে। কায়সার কামালকে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হয়। পুলিশ সূত্র বলছে, মামলার বাদী ওই আইনজীবী তাঁর স্ত্রী ও কায়সার কামাল দুজনকেই সতর্ক করেছিলেন। কিন্তু তাঁরা পরকীয়ার সম্পর্ক থেকে সরে আসেননি।গতকাল কলাবাগানের কাছের একটি বাসায় দুজনকে পাওয়া যায়। এরপর তাঁদের কেন্দ্র করে শোরগোল শুরু হয়।ওই আইনজীবী পরে থানায় মামলা দায়ের করেন।কলাবাগান থানার পরিদর্শক অপারেশন ঠাকুর দাস মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।প্রভাষককে অব্যাহতি : এদিকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক হুমায়ুন কবিরকে অব্যাহতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। গতকাল বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নুরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের আনিত অভিযোগ তদন্তের আওতাধীন থাকায় যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধে গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে সাময়িকভাবে বিরত রাখা হয়েছে।পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ আদেশ বহাল থাকবে।গেল ১৩ নভেম্বর এক নেপালি শিক্ষার্থী হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনে রেজিস্টার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। ওই নেপালি শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করে নেপালি শিক্ষার্থীরা।এ বিষয়ে আইন বিভাগের শিক্ষক মানসুরা খানমকে যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেলের প্রধান করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটির সুপারিশে শিক্ষক হুমায়ূন কবিরের সহকারী প্রকটর পদ স্থগিত করা হয়।ব্যাংক কর্মকর্তা: অপরদিকে দেশের উত্তর জনপদ জেলা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভাণ্ডার ইউনিয়নের সুন্দ্রাহবী গ্রামের তিন শিশুকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মোবারক হোসেন (৫৬) নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাত মামলা দায়ের...


Dec 05, 2019

জাতীয়

ডিআরইউ নতুন কমিটির দায়িত্বভার গ্রহণ

ডিআরইউ নতুন কমিটির দায়িত্বভার গ্রহণ

সাংবাদিকদের পেশাজীবী সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ‘র (ডিআরইউ) নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দ দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় ডিআরইউ সাগর-রুনী মিলনায়তনে বিদায়ী কমিটির কাছ থেকে ২০২০ কার্যমেয়াদের জন্য নবনির্বাচিতরা দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।বিদায়ী কমিটির সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- নবনির্বাচিত সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী।অনুষ্ঠানে বিদায়ী কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ নবনির্বাচিত কমিটিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এছাড়া নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ ক্রেস্ট দিয়ে বিগত কমিটিকে বিদায় জানান।গত ৩০ নভেম্বর শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি’র (ডিআরইউ) কার্যনির্বাহী কমিটি-২০২০ এর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট এর রফিকুল ইসলাম আজাদ। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন এশিয়ান মেইল ২৪ ডটকমের রিয়াজ চৌধুরী।এছাড়াও সহ-সভাপতি পদে বাংলা ট্রিব্রিউনের নজরুল কবীর, যুগ্ম সম্পাদক ডেইল স্টারের হেলিমুল আলম বিপ্লব, অর্থ সম্পাদক বাংলাভিশনের জিয়াউল হক সবুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক সময়ের আলোর হাবীবুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক সংগ্রামের মোঃ জাফর ইকবাল, নারী বিষয়ক সম্পাদক বৈশাখি টিভির রীতা নাহার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আরটিভির সিনিয়র রিপোর্টার মাইদুর রহমান রুবেল, তথ্য প্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক আলোকিত বাংলাদেশের সাখাওয়াত হোসেন সুমন, ক্রীড়া সম্পাদক কালবেলার মোঃ মজিবুর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিজান চৌধুরী, আপ্যায়ন সম্পাদক এইচ এম আকতার, কল্যাণ সম্পাদক খালিদ সাইফুল্লাহ নির্বাচিত হয়েছেন।কার্যনির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে মঈনুল আহসান, এস এম মিজান, আহমেদ মুশফিকা নাজনীন, কামরুজ্জামান বাবলু, মোঃ ইমরান হাসান মজুমদার, এম মুরাদ হোসেন ও সায়ীদ আবদুল মালিক।এস এস...


Dec 05, 2019

অপরাধ

টাকা নিয়ে বিবাদে হত্যা করা হয় ২ জনকে

টাকা নিয়ে বিবাদে হত্যা করা হয় ২ জনকে

গত মঙ্গলবার মিরপুর-২ এ একটি বাসায় যে দুই নারী খুন হয়েছেন তাদেরকে মূলত পতিতা বৃত্তির টাকা নিয়ে ঝামেলা হওয়ায় হত্যা করা হয় এমন তথ্য পেয়েছে পুলিশ।এ ঘটনায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা পশ্চিম বিভাগের (ডিবি) একটি দল দুইজনকে গ্রেপ্তার করে।গ্রেপ্তারকৃতরা ওই বাসায় অসামাজিক কাজে গিয়েছিল। কাজ শেষে টাকা নিয়ে ঝামেলার হওয়ার কারণে প্রথমে সুমীকে (২০) এবং পরে বৃদ্ধা রহিমা বেগমকে (৬০) গলাটিপে হত্যা করা হয়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে এমন তথ্য দিয়েছে তারা।বৃহস্পতিবার ( ৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানিয়েছেন ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মো. আবদুল বাতেন।গ্রেপ্তার হওয়া ওই দুই ব্যক্তি হলেন, মো. ইউসুফ খান ও অপরজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তার নাম প্রকাশ করা হয়নি। গতকাল বুধবার রাজধানীর সদরঘাট এলাকা হতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ভিকটিমের ব্যবহৃত ১টি মোবাইল ফোন, ১৪ হাজার টাকা, ইমিটেশনের ৩টি চেইন ও ১টি কানের দুল উদ্ধার করা হয়।উল্লেখ্য  গত ২ ডিসেম্বর রাতে মিরপুর সেকশন ২ এর একটি বাড়ির চতুর্থ তলার ফ্ল্যাটে রহিমা বেগম (৬৫) ও সুমী (২০) নামে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত রহিমা বেগমের মেয়ে বাদী হয়ে মিরপুর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলাতে তাদের গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছে ডিবি।ওআ / এস এস...


Dec 05, 2019

শিক্ষা ও সংস্কৃতি

সকলের মেধা শ্রম নিয়োজিত হোক শতভাগ মানব কল্যাণে

সকলের মেধা শ্রম নিয়োজিত হোক শতভাগ মানব কল্যাণে

মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন প্রতিটি মানুষই স্বেচ্ছাসেবক। সকলের মেধা শ্রম নিয়োজিত হোক শতভাগ মানব কল্যাণে। আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবসে এমন মন্তব্য করেছেন, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী  স্বপন ভট্টাচার্য্য।আজ বৃহস্পতিবার আন্তজার্তিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস উপলক্ষ্যে  ইন্ডিপেনন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি  মিলনায়তন, বসুন্ধরা, ঢাকায়  জাতিসংঘ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন (ইউএনভি) কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে   পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী  স্বপন ভট্টাচার্য্য  এ'সব কথা বলেন।তিনি আরও বলেন, ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের  উদাত্ত আহবানে দল মত নির্বিশেষে যার যা কিছু আছে তা নিয়েই আমরা সবাই মুক্তিযুদ্ধে যাপিয়ে পড়েছিলাম সেটাই  ছিল মূলত স্বেচ্ছাসেবক কাজ। তরুণ স্বেচ্ছাসেবকরা উন্নয়ন খাতে কাজ করতে গিয়ে তাদের নিজেদের নানান দক্ষতা এবং নেতৃত্বমূলক গুণাবলি অনুশীলন করার সুযোগ পান যা তাদের করে তোলে আরও দায়িত্ববান।প্রতিমন্ত্রী  স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, আমি মনে করি, শৈশব থেকেই শিক্ষা-পাঠ্যক্রমে স্বেচ্ছাসেবার ধারণা অন্তর্ভূক্ত করা দরকার যাতে শিশুরা বিদ্যালয় থেকেই স্বেচ্ছাসেবার গুরুত্ব বুঝতে পারে এবং আমি নিশ্চিত, এটি তাদের মানসিক বিকাশকে ইতিবাচকভাবে উন্নতি করার ক্ষেত্রে দারুণ প্রভাব ফেলবে।এটি আমাদের সমাজে সহনশীলতা, ভালবাসা এবং একে অপরকে সহায়তা করার মানসিকতা তৈরি করবে।প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, স্বেচ্ছাসেবা জীবনের সৌন্দর্য। আমি নিশ্চিত, আমরা সবাই যদি মন থেকে স্বেচ্ছাসেবায় এগিয়ে আসি তবে বাংলাদেশ আরও অনেক উন্নত হবে।বাংলাদেশে স্বেচ্ছাসেবা কার্যক্রম জোরদার করার ব্যাপারে আমাদের সবাইকে একত্রে কাজ করতে হবে।  বাংলাদেশ একটি দূর্যোগপ্রবন দেশ। দেশের সকল প্রকারের দূর্যোগ মোকাবেলায় আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।আমাদের মন্ত্রণালয় থেকে আমরা সকল প্রকার সহায়তা প্রদান করব যাতে স্থানীয় সরকার পর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবীদের সংগঠন আরও জোরদার হয়।আমার মতে জাতীয় পর্যায়ে তরুণদের জাতিসংঘের স্বেচ্ছাসেবা কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্তির ব্যাপারে আরও উৎসাহিত করা প্রয়োজন। আমি আমার মন্ত্রণালয়কে বলব  যাতে তারা জাতীয় জাতিসংঘ স্বেচ্ছাসেবকদের স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম এবং জাতিসংঘের বিভিন্ন প্রকল্পে অন্তর্ভূক্তির ব্যাপারে সচেষ্ট হয়।তরুণ ও যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ  করে প্রতিমন্ত্রী বলেন,  তোমরা তরুণরা দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জনগোষ্ঠী এবং পরিবর্তনের কান্ডারি। সত্যিই তোমাদের কাছে আমাদের অনেক আশা।আমি বিশ্বাস করি, তোমরা ইতিবাচক স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজের মাধ্যমে তোমরা তোমাদের জীবন ও দেশের পরিবর্তন আনতে পারবে। সরকারের জন্য অপেক্ষা না...